myUpchar प्लस+ सदस्य बनें और करें पूरे परिवार के स्वास्थ्य खर्च पर भारी बचत,केवल Rs 99 में -

সারাংশ

শ্বাস নালী (ব্রংকাই) সরু হয়ে যাওয়ার কারণে শ্বাস-প্রশ্বাসের অসুবিধার নাম হাঁপানি। এটি একটি দীর্ঘ স্থায়ী বংশানুক্রমিক অসুখ। এই রোগে দেহে বাতাস প্রবেশের রাস্তা বিভিন্ন বস্তুর প্রতি সংবেদনশীল হয়, যেমন ফুলের পরাগ, মোল্ড, আরশোলার মল, ধুলোর কীট, বিড়াল বা কুকুরের লোম, সংক্রমণ এবং অন্যান্য বিরক্তিকর বস্তু (পরিবেশের দূষণ, বিভিন্ন রাসায়নিক পদার্থ, ব্যায়াম, ওষুধের মধ্যে এসপিরিন, কৃত্রিম সংরক্ষক)। এই এলার্জিকারী বস্তুগুলির (এলার্জেন) সংস্পর্শে এলে শ্বাস নালী সংকুচিত হয়। এর ফলে দমবন্ধ, কাশী, বুকের উপরে চাপ এবং বুকের মধ্যে শোঁ শোঁ শব্দের মত উপসর্গগুলি দেখা যায়।

বাচ্চাদের মধ্যেও হাঁপানি একটি সাধারণ অসুখ। এই বাচ্চারা ঘরের ভিতরের এলার্জেনগুলির (বিছানার ধুলো, কারপেট, পরাগ রেণু, পোষা জন্তু) প্রতি সংবেদনশীল হয়। এর ফলে প্রায়ই তাদের অসুখে ভুগতে হয় এবং স্কুল কামাই হয়। যেহেতু হাঁপানির কোন নিরাময় নেই, তাই তাৎক্ষণিক আরাম দেওয়া এবং বারে বারে এর আক্রমণ বন্ধ করাই চিকিৎসার লক্ষ্য হয়। হাঁপানির চিকিৎসায় শ্বাসের সাথে নেওয়ার স্টেরয়েডস, ব্রঙ্কোডায়ালেটারস (শ্বাস নালীর পেশীগুলি শিথিল করে বাতাস যাওয়ার পথ করে দেয় যে ওষুধগুলি) এবং ফোলা বন্ধ করার ওষুধগুলি সাধারণত প্রেসক্রাইব করা হয়। অধিকন্তু, নিজের যত্ন নেওয়া যেমন কোন বস্তুগুলি থেকে হাঁপানি হয় তা জানা এবং এড়িয়ে চলা, ওষুধ পত্রের ব্যবস্থা করে রাখা এবং নিয়মিত শ্বাস-প্রশ্বাসের ব্যায়াম করা বিশেষ ভাবে হাঁপানির সাথে লড়াইতে সাহায্য করে।

  1. হাঁপানি রোগ (এজমা) এর উপসর্গ - Symptoms of Asthma in Bengali
  2. হাঁপানি রোগ (এজমা) এর চিকিৎসা - Treatment of Asthma in Bengali
  3. হাঁপানি রোগ জন্য ঔষধ
  4. হাঁপানি রোগ ৰ ডক্তৰ

হাঁপানি রোগ (এজমা) এর উপসর্গ - Symptoms of Asthma in Bengali

ফুসফুসের বায়ু চলাচলের নালীগুলির সংকীর্ণতার কারণে প্রধানত হাঁপানির লক্ষণগুলি দেখা যায়। এইগুলি হল:

  • ঊর্ধ্বশ্বাস অথবা নিঃশ্বাসের দুর্বলতা
    হাঁপানির রোগীদের সাধারণত: নিঃশ্বাস নিতে অসুবিধা হয়, দম বন্ধ লাগে অথবা শ্বাস নিতে ছটফটানি হয়। এগুলি বিশেষ ভাবে হয় যখন হাঁপানি বাড়ে।
  • বুকের ভিতর শোঁ শোঁ আওয়াজ
    সরু শ্বাস নালীর ভিতর দিয়ে বায়ু চলাচল করার সময় বাঁধার কারণে বুকের ভিতরে উচ্চ ও তীক্ষ্ণ স্বরবিশিষ্ট শব্দ হয়। যখন হাঁপানি কম থাকে তখন সাধারণত শ্বাস ত্যাগ করার সময় এই আওয়াজ হয়। যখন হাঁপানি গুরুতর রূপ ধারণ করে তখন শ্বাস নেওয়ার সময়ও এই শব্দ হয়। যখন হাঁপানি অতি তীব্র আকার ধারণ করে তখন সরু শ্বাস নালী দিয়ে চলাচল করার সময় বাতাস এত বাধা প্রাপ্ত হয় যে তখন এই শব্দ সম্পূর্ণরূপে অনুপস্থিত থাকে।
    এই রকমের শোঁ শোঁ শব্দ অন্য রোগেও পাওয়া যায়, যেমন সিস্টিক ফাইব্রোসিস, হার্ট ফেলিয়োর এবং স্বরতন্ত্রীয় ত্রুটি। তাই বিভিন্ন পরীক্ষার মাধ্যমে হাঁপানি সম্বন্ধে নিশ্চিত হয়ে নেওয়া জরুরী।
  • কাশি
    হাঁপানির একটি গুরুত্বপূর্ণ উপসর্গ হচ্ছে কাশি বিশেষত ব্যায়াম-জনিত এবং রাত্রিকালীন হাঁপানির ক্ষেত্রে। এটা শুষ্ক এবং অ-উৎপাদনশীল কাশি। 
  • দম বন্ধ হয়ে আসা
    অনেক সময় হাঁপানির মাত্র একটি লক্ষ্মণ দেখা যায় যেমন দম বন্ধ হয়ে আসা অথবা বুকে ব্যথা হওয়া। এই লক্ষণ বিশেষত রাত্রিকালীন হাঁপানি এবং ব্যায়াম করার পর হাঁপানিতে দেখা যায়।

হাঁপানি রোগ (এজমা) এর চিকিৎসা - Treatment of Asthma in Bengali

চিকিৎসার উদ্দেশ্য হল রোগের তীব্র আক্রমণ থেকে তাৎক্ষনিক মুক্তি এবং ভবিষ্যতে দীর্ঘ সময় ধরে রোগের গুরুতর আক্রমণকে প্রতিহত করা।

দ্রুত ত্রাণ (ত্রাণদায়ী ওষুধ)

এইগুলিকে উদ্ধারকারী ওষুধ বলা হয়। হাঁপানির তীব্র কষ্টদায়ক আক্রমণ থেকে তাৎক্ষণিক আরাম পাওয়ার জন্য এইগুলির ব্যবহার করা হয়। ব্যায়াম শুরু করার আগে এই ওষুধগুলি সেবন করার পরামর্শ দেন ডাক্তারবাবুরা কারণ সাধারণত ব্যায়াম করার পর হাঁপানির টান শুরু হয়ে যায় (ব্যায়াম-প্ররোচিত হাঁপানি)। ব্যায়ামগুলির উদাহরণ হল দৌড়ানো বা শীতকালীন ক্রীড়া (স্কিইং, আইস স্কেটিং, আইস হকি)। দ্রুত-মুক্তিদায়ী ওষুধগুলি মসৃণ পেশীগুলিকে শিথিল করে দিয়ে সংকুচিত বায়ুচলাচলকারী নলিকে খুলে দেয় যাতে বাতাস চলাচলে কোন বাধা না আসে।

হাঁপানির তীব্র এবং কষ্টদায়ক উপসর্গগুলি থেকে দ্রুত মুক্তি পেতে ত্রাণদায়ী ওষুধগুলির মধ্যে প্রথম পছন্দ হল দ্রুত কার্যকারী বিটা-অ্যাগোনিস্টগুলি। এইগুলি হল শ্বাসের সাথে মুখ ভিতরে টেনে নেওয়ার ওষুধ, যা প্রয়োগ মাত্রই শ্বাস নালীকে দ্রুত শিথিল করে দেয় (ব্রঙ্কোডায়ালেশান)। ডাক্তারবাবুরা যে ওষুধগুলি প্রেসক্রাইব করেন সেগুলি হল অলবিউটেরল, লেভালবিউটেরল এবং পিরবিউটেরল। যখন আপনি এই ত্রাণকারী ওষুধগুলি নিচ্ছেন, তখনও দীর্ঘ সময় ধরে হাঁপানির যে ওষুধগুলি আপনি ব্যবহার করেন সেগুলি বন্ধ করবেন না। যদি আপনাকে সপ্তাহে দুই বারের অধিক এই ত্রাণকারী ওষুধগুলি ব্যবহার করতে হয় তাহলে তা ডাক্তারবাবুকে জানান জরুরী।

দীর্ঘমেয়াদী নিয়ন্ত্রণ (নিয়ন্ত্রণকারী ওষুধ)

  • ইনহেলড কর্টিকোস্টেরয়েডস
    হাঁপানির দীর্ঘ মেয়াদি চিকিৎসার জন্য এইগুলি প্রথম পছন্দ। এর ব্যবহারে শ্বাস নালীর প্রদাহ কমে, ফলে শ্বাস নালীর ফোলাও কমে যায় (যেমন ফ্লুটিকাজোন, বাডেসোনাইড, মোমেটাজোন, বিক্লোমিথাজোন এবং প্রেডনিজোলন)।
  • ইনহেলড কর্টিকোস্টেরয়েডস এবং দীর্ঘ সময় কার্যকরী বিটা-অ্যাগনিস্টস 
    দীর্ঘ সময় কার্যকরী বিটা-অ্যাগনিস্টস (এল-এ-বি-এ) মসৃণ পেশীগুলিকে শিথিল করে রাখে এবং শ্বাস নালীকে  খুলে রাখে। রাত্রি-কালীন হাঁপানি এবং ব্যায়াম প্ররোচিত হাঁপানির চিকিৎসার জন্য কখনও কখনও এই ওষুধগুলি ব্যবহার করা হয়। অবশ্য হাঁপানির দীর্ঘ মেয়াদি চিকিৎসার জন্য ডাক্তারবাবুরা এল-এ-বি-এ'র সাথে সব সময়েই ইনহেলড স্টেরয়েডস দিয়ে থাকেন। এই সমন্বয় এছাড়াও ব্যবহার করা হয় যখন দ্রুত কার্যকারী বিটা-অ্যাগোনিস্ট এবং ইনহেলড স্টেরয়েডস একটি তীব্র আক্রমণের উপসর্গ উপশম করতে ব্যর্থ হয়। এই সমন্বয়ের উদাহরণ হল ফ্লুটিকাজোন ও সালমেটেরল, ফ্লুটিকাজোন ও ভিলানটেরল এবং বাডেজোনাইড ও ফরমোটেরল।
  • দীর্ঘকাল-কার্যকারী এন্টিকোলিনারজিকস
    এগুলি শ্বাসের সাথে ভিতরে টেনে নেওয়ার ওষুধ। এগুলিকে রক্ষণাবেক্ষণকারী ওষুধ হিসাবে ব্যবহার করা হয় যাতে শ্বাস নালীর মসৃণ পেশীগুলি সব সময়ই শিথিল থাকে। এদের মধ্যে রয়েছে টিওট্রোপিয়াম এবং ইপ্রাট্রোপিয়াম। ওষুধের কার্যকরী ক্ষমতা বৃদ্ধি করতে ডাক্তারবাবুরা অনেক সময় দুইটি এন্টিকোলিনারজিক ওষুধের সমন্বয় ব্যবহার করেন।
  • মিথাইলজ্যানথিনস
    মিথাইলজ্যানথিনগুলি, যেমন থিয়োফাইলিন, রাত্রি-কালীন হাঁপানির প্রতিরোধ করতে ব্যবহার করা হয়।
  • লিউকোট্রাইন রিসেপটার এন্টাগনিস্ট অথবা লিউকোট্রাইন মডিফায়ার্স
    এই ওষুধগুলি খেলে শ্বাস নালীতে ব্রঙ্কোস্প্যাজম, প্রদাহ এবং ফোলা থেকে রেহাই পাওয়া যায়। এদের মধ্যে আছে মন্টেলুকাস্ট এবং জাফিরলুকাস্ট।
  • মাস্ট-সেল স্থিতিশীলকারক
    এগুলি প্রদাহ কমাতে সাহায্য করে; ফলে ঠাণ্ডা বাতাসের কারণে বা ব্যায়াম করার জন্য যে তীব্র হাঁপানি হয়  তা নিয়ন্ত্রণ করা যায় (উদাহরণ: ক্রোমোলিন সোডিয়াম)।
  • ইমিউনোথেরাপি অথবা ইমিউনোমডিউলেটারস
    এই ওষুধগুলি ইনজেকশানের মাধ্যমে প্রয়োগ করা হয়। পরাগ রেণু, মোল্ডস, ধুলোর কীট এবং পশুর ড্যান্ডা্‌রের মত বিভিন্ন এলার্জেনের সংস্পর্শে এলে যে হাঁপানি হয়, তা প্রতিরোধ করতে এই ওষুধগুলি ব্যবহার করা হয়। ওমালিজুমাব'এ রয়েছে এন্টি-আই-জিই মোনোক্লোনাল এন্টিবডিজ, যা এলার্জেনের বিরুদ্ধে দেহের এলার্জি প্রতিক্রিয়া নিয়ন্ত্রণ করে। অন্য উদাহরণগুলি হচ্ছে রেসলিজুমাব এবং বেনরালীজূমাব।
  • ব্রঙ্কিয়াল থার্মোপ্লাস্টি
    যে প্রাপ্তবয়স্ক গুরুতর হাঁপানির রোগীরা চিকিৎসা থেকে উপকৃত হন না তাদের জন্য এটি একটি সাম্প্রতিক এফ-ডি-এ দ্বারা অনুমোদিত পদ্ধতি। শ্বাস নালীর মধ্যে নিয়ন্ত্রিত রেডিও তরঙ্গ পাঠিয়ে তাপ শক্তি উৎপন্ন করে বায়ুচলাচলকারী মসৃণ পেশীগুলি ধ্বংস করা হয়। মসৃণ পেশীগুলি ধ্বংস হওয়ায় শরীরের প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার পরিবর্তন হয় এবং সেই কারণে শ্বাস নালীর সংকোচন হ্রাস হয়।

জীবনধারার নিয়ন্ত্রণ

হাঁপানি রোগের কোন নিরাময় নেই। কাজেই যাদের এই রোগ আছে এটি তাদের একটি প্রধান উদ্বেগ, কারণ হাঁপানির দম বন্ধ করা এবং কষ্টকর পর্বগুলি খুবই অনিয়মিত। অতএব, হাঁপানির রোগীদের দৈনন্দিন স্বাভাবিক কাজ-কর্ম বিঘ্নিত হতে পারে। ফলে কর্মক্ষমতা কমে গিয়ে আর্থিক ক্ষতি হতে পারে। কাজেই হাঁপানির ব্যবস্থাপনার লক্ষ্য হচ্ছে হাঁপানির তীব্রতা কম করা এবং গুরুতর পর্বগুলির পুনরাবৃত্তির হার কমিয়ে এনে ভবিষ্যতে বিরূপ প্রতিক্রিয়াগুলি, যেমন যকৃতের ক্ষতি, সংক্রমণ বা মৃত্যু, প্রতিরোধ করা।

  • নিজের যত্ন নিজে নেওয়াই হাঁপানির ব্যবস্থাপনার প্রধান উপাদান। রোগটি সম্বন্ধে পর্যাপ্ত ভাবে বোঝা এবং এলার্জেনগুলি সম্পর্কে তথ্য থাকা তীব্র আক্রমণ প্রতিরোধে সহায়তা করে। একটি তীব্র আক্রমণ নিয়ন্ত্রণ করা সম্পর্কে জ্ঞান (যেমন ওষুধ ব্যবহারের ফ্লো-চার্ট) থাকলে জরুরী অবস্থায় কার্যকর ভাবে মোকাবিলা করা যাবে। এছাড়াও, ডাক্তারবাবুর সাথে পরামর্শ করে আপনার সন্তানের জন্য একটি কর্ম পরিকল্পনা প্রস্তুত রাখা উচিৎ যা তীব্র আক্রমণের সময়ে জরুরী ভিত্তিতে কার্যকর করা যাবে।
  • লক্ষ্য করা গিয়েছে যে যাদের হাঁপানি রোগ নির্ণয় হয়েছে তাদের সবাইয়ের মধ্যেই দুশ্চিন্তা করা একটি ব্যবহারিক পরিবর্তন। হাঁপানি শুরু করতে এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ অবদানকারী। শ্বাসের ব্যায়াম, ধ্যান, যোগব্যায়াম, এবং অন্যান্য মন শিথিল করার কৌশলগুলি হাঁপানি সংক্রান্ত ভয় ও দুশ্চিন্তা কাটিয়ে ওঠার দীর্ঘ মেয়াদি ব্যবস্থাপনায় সাহায্য করে। শ্বাস-নিয়ন্ত্রণ কৌশলগুলিতে প্রশিক্ষণ, শ্বাস স্বাভাবিক-করণে সহায়তা করে এবং হাঁপানির অস্থির অনির্দেশ্য তীব্র আক্রমণের পর্বগুলিতে মানসিক চাপ কাটিয়ে উঠতে সাহায্য করে।
  • নিয়মিত হাল্কা ব্যায়াম করা যেমন হাঁটা, ধূমপান পরিত্যাগ করা এবং পুষ্টিকর খাদ্যাভ্যাসের মতন জীবনধারার কয়েকটি পরিবর্তন হাঁপানির ব্যবস্থাপনায় যোগ করা যেতে পারে।
Dr. Chintan Nishar

Dr. Chintan Nishar

ENT

Dr. K. K. Handa

Dr. K. K. Handa

ENT
21 वर्षों का अनुभव

Dr. Aru Chhabra Handa

Dr. Aru Chhabra Handa

ENT
24 वर्षों का अनुभव

Dr. Yogesh Parmar

Dr. Yogesh Parmar

ENT
5 वर्षों का अनुभव

হাঁপানি রোগ জন্য ঔষধ

হাঁপানি রোগ के लिए बहुत दवाइयां उपलब्ध हैं। नीचे यह सारी दवाइयां दी गयी हैं। लेकिन ध्यान रहे कि डॉक्टर से सलाह किये बिना आप कृपया कोई भी दवाई न लें। बिना डॉक्टर की सलाह से दवाई लेने से आपकी सेहत को गंभीर नुक्सान हो सकता है।

Medicine Name
Formonide खरीदें
Budamate खरीदें
Foracort खरीदें
Betnesol खरीदें
Aerocort खरीदें
Budecort खरीदें
Defwave खरीदें
Propyzole खरीदें
Delzy खरीदें
Flazacot खरीदें
Airtec FB खरीदें
Propyzole E खरीदें
Dephen Tablet खरीदें
Canflo BN खरीदें
Toprap C खरीदें
D Flaz खरीदें
Budetrol खरीदें
Crota N खरीदें
Fubac खरीदें
Canflo B खरीदें
Dzspin खरीदें
Combihale FB खरीदें
Sigmaderm N खरीदें
Fucibet खरीदें
Rusidid B खरीदें

References

  1. American Thoracic Society. What Is Asthma?. Am J Respir Crit Care Med Vol 188, P7-P8, 2013. ATS Patient Education Series [Internet]
  2. Asthma and Allergy Foundation of America. [Internet]. Maryland, United States; Asthma
  3. Lötvall J, Akdis CA, Bacharier LB, et al. Asthma endotypes: a new approach to classification of disease entities within the asthma syndrome. J Allergy Clin Immunol. 2011; 127:355-360. PMID: 21281866
  4. National Heart, Lung, and Blood Institute [Internet]: U.S. Department of Health and Human Services; Asthma
  5. Lange P. Prognosis of adult asthma.. Monaldi Arch Chest Dis. 1999 Aug;54(4):350-2. PMID: 10546480
और पढ़ें ...
ऐप पर पढ़ें