myUpchar प्लस+ के साथ पूरेे परिवार के हेल्थ खर्च पर भारी बचत

যুগ যুগ ধরে ডাবের জল, প্রাচ্যের পরশমণি, একটি জনপ্রিয় প্রাকৃতিক পানীয়। বহু দেশে এর জনপ্রিয়তা রয়েছে, যেমন কোস্টারিকা, ডমিনিকান রিপাবলিক, ইন্দোনেশিয়া, শ্রীলংকা, ফিলিপিনস, ব্রাজিল, ক্যারিবিয়ান দ্বীপপুঞ্জ, মেক্সিকো এবং এমন কি ভারতবর্ষও।

নারকেল আরোকেসিয়াই পরিবারের অন্তর্গত, এবং এর 4000 প্রজাতি রয়েছে। ডাবের জলের স্বাদ নির্ভর করে যে মাটিতে গাছটি চাষ করা হয় তার গুণমানের উপরে। যদি সমুদ্রতীরবর্তী হয়, তাহলে এর গন্ধ হালকা নোনতা হতে পারে।

বিশ্বে সর্বাধিক নারকেল উৎপন্ন হয় ইন্দোনেশিয়াতে। তার পরে আছে ফিলিপিনস এবং ভারতবর্ষ। ভারতবর্ষে কেরালা, কর্ণাটক এবং তামিলনাড়ুতে সব চেয়ে বেশি নারকেল হয়।

নারকেলের 95% হচ্ছে জল। এর ক্যালরি মান কম, এবং এর জল পানে দেহে চর্বি বৃদ্ধি হয় না। এ'ছাড়াও ডাবের জলে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন, খনিজ পদার্থ এবং ইলেক্ট্রোলাইট থাকে।, যেগুলি শরীরের পক্ষে উপকারী।

ডাবের জল সম্বন্ধে কিছু মৌলিক তথ্য:

  • বৈজ্ঞানিক নাম: ডাবের জলের উৎস হল নারকেল গাছ কোকোস নুসিফেরা
  • পরিবার: আরোকেসিয়াই
  • সাধারণ নাম: হিন্দিতে নারিয়েল পানি
  • সংস্কৃত নাম: নারিকেলাজলম
  • যে অংশ ব্যবহৃত হয়: নারকেলের ভিতরের জল
  • আদি উৎপত্তি স্থান এবং ভৌগলিক বিতরণ: বিশ্বে 80টির'ও বেশি দেশে নারকেল উৎপাদিত হয়। তবে ক্রান্তি বলয়ে নারকেল বেশি হয়। বিশ্বের 78% নারকেল উৎপাদিত হয় ইন্দোনেশিয়া, ফিলিপিনস, ভারতবর্ষ, শ্রীলংকা এবং থাইল্যান্ডে। 
  • চিত্তাকর্ষক খবর: সারা বিশ্বে প্রতি বছর 20 বিলিয়ান নারকেল উৎপাদিত হয়।
  1. ডাবের জলের পুষ্টি সংক্রান্ত তথ্য - Coconut water nutrition facts in Bengali
  2. স্বাস্থ্যের উপকারে ডাবের জল - Coconut water health benefits in Bengali
  3. ডাবের জলের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া - Coconut water side effects in Bengali
  4. উপসংহার - Takeaway in Bengali

ডাবের জলের মূল উপাদান হল জল। তবে, ডাবের জলে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি এবং নানাবিধ খনিজ পদার্থ যেমন ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেশিয়াম, পটাশিয়াম এবং ফসফরাস থাকে।

ইউএসডিএ পুষ্টি তথ্য ভাণ্ডার অনুযায়ী 100 মিলি লিটার ডাবের জলে নিম্ন লিখত পুষ্টি-গত মান থাকে:

পুষ্টি মান/ 100 মিলি লিটার
শক্তি 29 কিলো ক্যালরি
প্রোটিন 0.30 গ্রাম
শ্বেতসার 6.97 গ্রাম
চিনি 6.36 গ্রাম
খনিজ  
ক্যালশিয়াম 6 মিলি গ্রাম
ম্যাগনেশিয়াম 2 মিলি গ্রাম
ফসফোরাস 6 মিলি গ্রাম
পটাশিয়াম 176 মিলি গ্রাম
সোডিয়াম 12 মিলি গ্রাম
ভিটামিন  
ভিটামিন সি 5.5 মিলি গ্রাম

অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট এবং অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল যৌগের সমৃদ্ধ উৎস হল ডাবের জল। ডাবের জল পানে ত্বকের এবং দেহের আর্দ্রতা বৃদ্ধি হয়। ইলেক্ট্রোলাইটেরও একটি চমৎকার উৎস হল ডাবের জল। বৈজ্ঞানিক ভাবে প্রমাণিত ডাবের জলের স্বাস্থ্যের উপকারে আসে এমন কয়েকটি গুণের সাথে পরিচিত হয়ে নেওয়া যাক।

  • দেহের আর্দ্রতা বৃদ্ধি করে: শারীরিক পরিশ্রমের পরে দেহের আর্দ্রতা বৃদ্ধি করতে ডাবের জলের ব্যবহার প্রতিদিনই বেড়েই চলেছে। পরিশ্রম করার সময় দেহ থেকে যে জল এবং ইলেক্ট্রোলাইট এবং জল বেড়িয়ে যায়, ডাবের জল তা পূরণ করে, ফলে ক্লান্তি দূর হয়।
  • বৃক্কে পাথর জমা প্রতিরোধ করে: ডাবের জল দেহ থেকে অধিবিষ (টক্সিন) বার করে দেয় এবং বৃক্কতে জমতে দেয় না। দেখা গিয়েছে যে ডাবের জল বৃক্কতে পাথর জমাতে বাধা দেয় এবং পাথরের সংখ্যা কম রাখে।
  • ত্বকের উপকার: প্রদাহ এবং ইউভি রশ্মির ক্ষতির হাত থেকে বাঁচতে ডাবের জল আপনার সব চেয়ে কাছের বন্ধু। প্রাকৃতিক অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট এবং অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল ধর্ম থাকায় ত্বকের সংক্রমণ এবং বয়সের প্রাথমিক ছাপ পড়াকে প্রতিরোধ করে।
  • কোলেস্টেরল হ্রাস করে: দেখা গিয়েছে যে ডাবের জল কোলেস্টেরলের স্বাস্থ্য-সহায়ক কোলেস্টেরলের মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে। খারাপ কোলেস্টেরলের পরিমাণ হ্রাস করে এইচডিএল অথবা ভাল কোলেস্টেরলের পরিমাণ বৃদ্ধি করে।  ফলে হৃদযন্ত্রের অসুখ হওয়ার ঝুঁকি হ্রাস করে।
  • দাঁতে গর্ত হওয়া প্রতিরোধ করে: ডাবের জলে থাকে লউরিক অ্যাসিড, যেটি একটি ফ্যাটি অ্যাসিড। লউরিক অ্যাসিডের অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল গুণ আছে, ফলে দাঁতে গর্ত করা ব্যাকটেরিয়াগুলির বিকাশ এবং বৃদ্ধি নিয়ন্ত্রণ করে দাঁত খারাপ হওয়ার প্রতিরোধ করে।

ডাবের জল চর্বি-হীন কিন্তু মজা-হীন নয়। সুস্থ এবং সবল থাকার জন্য একে পরশমণি বলে বিবেচনা করা হয়। তবে মনে রাখবেন কোন কিছুরই অতিরিক্ত হওয়া ভাল নয়। যদিও ডাবের জল স্বাস্থ্যের পক্ষে খুবই উপকারী, তবুও এর কিছু খারাপ প্রভাব এবং অসুবিধা আছে।

  • হাইপারক্যালেমিয়ার সম্ভাবনা আছে
    উচ্চ মাত্রায় পটাশিয়াম হাইপারক্যালেমিয়ার সৃষ্টি করতে পারে। সুস্থ হৃদয় এবং পেশীর জন্য পটাশিয়ামের সূক্ষ্ম ভারসাম্য প্রয়োজন। অত্যধিক পরিমাণে ডাবের জল পান করলে দেহে পটাশিয়ামের মাত্রা বৃদ্ধি পেতে পারে, ফলে হৃত-স্পন্দনের তালে বিপদ জনক এবং মারাত্মক পরিবর্তন আসতে পারে। যদি চিকিৎসা না করা হয়, তাহলে মৃত্যু পর্যন্ত হতে পারে।
     
  • রক্তচাপ হ্রাস পেতে পারে
    ডাবের জল রক্তচাপ হ্রাস করে, তাই উচ্চ রক্তচাপের রোগীদের জন্য এটি উপকারী। কিন্তু যাদের রক্তচাপ স্বাভাবিকের চেয়ে কম, তারা ডাবের জল পরিহার করবেন, কারণ এটি রক্তচাপকে আরও নামিয়ে আনতে পারে। (আরও পড়ুন: নিম্ন রক্তচাপের চিকিৎসা)

ডাবের জল একটি প্রাকৃতিক, সঞ্জীবনী এবং স্বাস্থ্যকর পানীয়। শারীরিক পরিশ্রমের পরে দেহের আর্দ্রতা পুনরায় ফিরিয়ে আনে। ত্বক এবং চুলকে রক্ষা করে। এর অ্যান্টি-মাক্রোবিয়াল গুণ দাঁতের ক্ষয় রোধ করে। রক্তচাপ হ্রাস করে এবং মধুমেহ রোগকে নিয়ন্ত্রণে রাখে। তবে এর উচ্চ পটাশিয়ামের মাত্রা হাইপারক্যালেমিয়া নামক একটি বিপদ জনক পরিস্থিতির সৃষ্টি করতে পারে, যার চিকিৎসা না হলে গুরুতর বিপদ হতে পারে। তবে এর স্বাস্থ্যকর গুণগুলি বিবেচনা করে নিশ্চিত ভাবেই ডাবের জল নরম পানীয় এবং এনার্জি পানীয়গুলির উত্তম বিকল্প।

और पढ़ें ...