myUpchar प्लस+ सदस्य बनें और करें पूरे परिवार के स्वास्थ्य खर्च पर भारी बचत,केवल Rs 99 में -

বেহুস হওয়া (সিনকোপ) - Fainting (Syncope) in Bengali

Dr. Nadheer K M (AIIMS)MBBS

December 01, 2018

October 05, 2020

অনেক সময় অডিও র জন্য মুহূর্তের বিলম্ভ হতে পারে
বেহুস হওয়া
सुनिए অনেক সময় অডিও র জন্য মুহূর্তের বিলম্ভ হতে পারে

বেহুস বা অজ্ঞান হওয়া কি?

বেহুস বা অজ্ঞান হওয়া, চিকিৎসাগতভাবে সিনকোপ নামেও পরিচিত, এটি এমন একটি মেডিকেল শর্ত যেখানে রোগী চেতনার একটি অস্থায়ী ক্ষতি ভোগ করেন। এর সংঘটন হল সাধারণ, এটি বিভিন্ন কারণে সৃষ্টি হতে পারে। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে, অজ্ঞান হওয়া হল একটি অন্তর্নিহিত চিকিৎসা অবস্থার নির্দেশক এবং সেই কারণে, হাল্কাভাবে গ্রহণ করা উচিত নয়।

অজ্ঞান হওয়ার জন্য প্রাথমিক কারণ হল মস্তিষ্কে রক্ত ​​প্রবাহ কমে যাওয়া যা কয়েক সেকেন্ডের জন্য স্থায়ী হয়। এই বিঘ্নিত রক্ত ​​প্রবাহ বিভিন্ন কারণে হতে পারে। ভাগ্যক্রমে, এটি স্বল্প সময়ের জন্য হয় এবং বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই, এটি বিপজ্জনক হয় না, তবে, এটি একটি অন্তর্নিহিত শর্তের ইঙ্গিত করে যা জীবনের ক্ষেত্রে আশঙ্কাজনক হতে পারে।

এর সঙ্গে যুক্ত লক্ষণ ও উপসর্গগুলি কি কি?

অজ্ঞান হওয়ার সাথে যুক্ত সাধারণ লক্ষণ ও উপসর্গগুলির মধ্যে রয়েছে:

 এর প্রধান কারণগুলি কি কি?

উপরে বর্ণিত হিসাবে, অজ্ঞান হওয়ার জন্য প্রধান কারণ হল মস্তিষ্কে রক্তপ্রবাহ ব্যাহত হওয়া। এই ব্যাহত হওয়া রক্তপ্রবাহ নানা কারণে ঘটতে পারে, তার মধ্যে কিছু হল:

  • হার্ট অ্যাটাক, হৃদযন্ত্র বিকল হয়ে যাওয়ার কারণে হৃদপিণ্ড আর রক্ত পাম্প করতে পারে না
  • স্ট্রোকের কারণে মস্তিষ্কে অক্সিজেনের ঘাটতি
  • পর্যাপ্ত পরিমাণ রক্ত বা তরল পাম্প করতে না পারা (ডিহাইড্রেশন, তীব্র ডায়রিয়া)
  • মস্তিষ্কে রক্ত পাঠানোর জন্য রক্তবাহিকাতে টোনের ঘাটতি

বেহুস হওয়ার জন্য অন্যান্য সাধারণ কারণগুলি হল:

  • একভাবে প্রচণ্ড তাপ লাগলে
  • অত্যধিক চাপ অথবা খাটুনি
  • দুর্বলতা অথবা রক্তের অভাব
  • শরীরে জলের অভাব
  • অতিরিক্ত অ্যালকোহলের পান  
  • প্রাতরাশ না করার কারণে রক্তে শর্করার মাত্রা হ্রাস

এটি কিভাবে নির্ণয় ও চিকিৎসা করা হয়?

বেহুস হওয়া হল বিভিন্ন চিকিৎসা অবস্থার একটি বিশিষ্ট এবং সাধারণ উপসর্গ এবং এটি নির্ণয়ের জন্য পরীক্ষার প্রয়োজন হয় না। যাইহোক, অজ্ঞানের সময়, রোগীকে ডাক্তারের কাছে নিয়ে যাওয়া হলে, ডাক্তার রোগীর স্বাস্থ্য পরীক্ষা করবেন এবং অজ্ঞান হওয়া সম্ভাব্য কারণ সনাক্ত করবেন।

অজ্ঞান হওয়ার ঘটনার পুনরাবৃত্তি প্রতিরোধ করার জন্য আদেশ অনুসারে, অন্তর্নিহিত কারণের রূপরেখা বের করা গুরুত্বপূর্ণ।

শরীরের যথাযথ কার্যাকারিতা পরীক্ষা করার জন্য ডাক্তার আপনাকে নির্দিষ্ট পরীক্ষা করতে পরামর্শ দিতে পারেন। এইগুলি অন্তর্ভুক্ত হতে পারে;

  • হৃদযন্ত্রের কার্যকলাপ পরীক্ষা করতে ইলেক্ট্রোকার্ডিওগ্রাম (ইসিজি/ECG)
  • অ্যানিমিয়া আছে কি না, তা নিশ্চিত হতে রক্ত পরীক্ষা
  • ডায়াবেটিস অথবা সংক্রমণ, হরমোনজনিত রোগ, এবং অন্যান্য ব্যাপার জানার জন্য রক্ত পরীক্ষা
  • প্রয়োজনে মাথার খুলির এক্স-রে অথবা সিটি স্ক্যান করানো

চিকিৎসা অন্তর্নিহিত কারণের উপর নির্ভর করে। যদিও বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই অজ্ঞান হওয়া কয়েক সেকেন্ডের জন্য স্থায়ী হতে পারে, যে অজ্ঞান হওয়া দীর্ঘস্থায়ী বা পুনরাবৃত্ত হয় তাদের তাড়াতাড়ি নির্ণয় করা প্রয়োজন। কারণের উপর ভিত্তি করে চিকিৎসা নাটকীয়ভাবে পরিবর্তীত হয়- একটি খাদ্যতালিকাগত পরিবর্তন, হৃদরোগ এবং ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ ইত্যাদি।



তথ্যসূত্র

  1. American Academy of Family Physicians [Internet]. Leawood (KS); Syncope: Evaluation and Differential Diagnosis
  2. MedlinePlus Medical Encyclopedia: US National Library of Medicine; Fainting
  3. National institute of neurological disorders and stroke [internet]. US Department of Health and Human Services; Syncope Information Page
  4. Center for Disease Control and Prevention [internet], Atlanta (GA): US Department of Health and Human Services; Fainting (Syncope)
  5. Better health channel. Department of Health and Human Services [internet]. State government of Victoria; Fainting

বেহুস হওয়া (সিনকোপ) ৰ ডক্তৰ

Dr. Abhishek Bunker Dr. Abhishek Bunker General Physician
2 वर्षों का अनुभव
Dr. Vishwas Pahuja Dr. Vishwas Pahuja General Physician
1 वर्षों का अनुभव
Dr. Nilofer Patel Dr. Nilofer Patel General Physician
3 वर्षों का अनुभव
Dr. Prachi Jain Dr. Prachi Jain General Physician
2 वर्षों का अनुभव
অনেক সময় অডিও র জন্য মুহূর্তের বিলম্ভ হতে পারে

বেহুস হওয়া (সিনকোপ) জন্য ঔষধ

বেহুস হওয়া (সিনকোপ) के लिए बहुत दवाइयां उपलब्ध हैं। नीचे यह सारी दवाइयां दी गयी हैं। लेकिन ध्यान रहे कि डॉक्टर से सलाह किये बिना आप कृपया कोई भी दवाई न लें। बिना डॉक्टर की सलाह से दवाई लेने से आपकी सेहत को गंभीर नुक्सान हो सकता है।