হার্ট অ্যাটাকে - Heart Attack in Bengali

Dr. Nabi Darya Vali (AIIMS)MBBS

July 03, 2019

March 06, 2020

হার্ট অ্যাটাকে
হার্ট অ্যাটাকে

সারাংশ

যে যে শারীরিক বিপর্যয়ের জন্য জরুরি চিকিৎসার প্রয়োজন হয় তার মধ্যে অন্যতম প্রধান হচ্ছে হৃদরোগ, ঠিক সময়ে তার চিকিৎসা না করলে মানুষের মৃত্যু হতে পারে। হৃদযন্ত্রের পেশিসমূহে যে ধমনীর মাধ্যমে রক্ত প্রবাহিত হয় সেখানে কোনও কারণে রক্তপ্রবাহ বাধাপ্রাপ্ত হলে আকস্মিকভাবে হৃদযন্ত্র বিকল হয়। হৃদরোগের অন্যতম সাধারণ কারণ হল, ধমনীতে চর্বি বা স্নেহ পদার্থ যাকে বলা হয় প্লাক, জমা হয়ে যাওয়া। ধূমপান, অস্বাস্থ্যকর খাওয়া-দাওয়া, স্থূলতা, উচ্চ রক্তচাপ, অতিরিক্ত কোলেস্টেরল, মদ্যপান, এবং অলস জীবনযাত্রার সম্মিলিত কারণের জন্য হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার ঘটনা বেশি ঘটে। কার্ডিয়াক মার্কারের সঙ্গে ইলেক্ট্রোকার্ডিওগ্রাম (ইসিজি) করা হলে চূড়ান্ত (ম্যাসিভ) হৃদরোগ নির্ণয় করা সহজ হয়। ম্যাসিভ হার্ট অ্যাটাক হলে ওষুধের সঙ্গে করোনারি অ্যাঞ্জিওপ্লাস্টি করা প্রয়োজন, এবং কোনও কোনও ক্ষেত্রে বাইপাস অস্ত্রোপচার প্রক্রিয়া করা হয়। 

হার্ট অ্যাটাকে এর উপসর্গ - Symptoms of Heart Attack in Bengali

বিভিন্ন ব্যক্তির মধ্যে উপসর্গের ধরন এবং তীব্রতার রকমফের আছে। কিছু রোগীর ক্ষেত্রে কোনও আপাত সমস্যা থাকে না, আবার কেউ কেউ প্রবল বুকে ব্যাথার উল্লেখ করেন। কোনও কোনও ব্যক্তি হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার কয়েক দিন বা কয়েক সপ্তাহ আগে বিপদসঙ্কেত বুঝতে পারেন, যার মধ্যে থাকে মাঝে মাঝে বুকে ব্যাথা, ক্লান্তি, এবং শ্বাসকষ্ট।  

প্রায়শই প্রথম উপসর্গ থাকে বুকের বাঁদিকে ব্যাথা যা ক্রমে বাম বাহু, চোয়াল, কাঁধ, এবং অন্যান্য এলাকায় ছড়িয়ে পড়ে। এই যন্ত্রণা দীর্ঘস্থায়ী হয় এবং তার সঙ্গে থাকতে পারে:

  • শ্বাসকষ্ট
  • বমিভাব.
  • বমি করা: অনেকেই মনে করেন বদহজমের কারণে বমি হচ্ছে এবং ঢেঁকুর তুললে বা হজমের ওষুধ (অ্যান্টঅ্যাসিড) খেলে ঠিক হয়ে যাবে।
  • অস্বাচ্ছন্দ্য
  • ত্বক বিবর্ণ হওয়া
  • দুর্বল নাড়ি
  • রক্তচাপ ওঠাপড়া
  • অস্থিরতা
  • বিপর্যয়ের আশঙ্কা এবং দুশ্চিন্তা

হার্ট অ্যাটাকে এর চিকিৎসা - Treatment of Heart Attack in Bengali

হাসপাতালের পরিকাঠামো যেখানে আছে সেখানে হৃদরোগে আক্রান্তদের চিকিৎসা চলতে পারে। হৃদরোগে আক্রান্তদের ক্ষেত্রে নিম্নোক্ত চিকিৎসা পদ্ধতি মেনে চলা হয়।:

চিকিৎসা

চিকিৎসার মধ্যে থাকবে আন্টি প্লেটলেট ওষুধ (যে ওষুধ রক্তবাহী ধমনীতে প্লেটলেট জমা হতে দেয় না), রক্ত পাতলা করার ওষুধ, অ্যান্টিকোঅ্যাগুলেন্ট (রক্ত জমাট বেঁধে গেলে তা ভেঙে দেওয়ার ওষুধ), অক্সিজেন থেরাপি, এবং হৃদরোগের উপসর্গ কমাতে ব্যাথা কমানোর ওষুধ। রক্তচাপ কমানো এবং কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণের ওষুধও দেওয়া হয়, যাতে বুকের ওপর চাপ কমে এবং অক্সিজেন সরবরাহ ঠিক থাকে।

অস্ত্রোপচার

ওষুধের সঙ্গে নিম্নলিখিত প্রক্রিয়াগুলির যে কোনও একটি করা হতে পারে:

  • করোনারি অ্যাঞ্জিওপ্লাস্টি
    করোনারি অ্যাঞ্জিওগ্রাফির সঙ্গে অ্যাঞ্জিওপ্লাস্টি করা হতে পারে যখন বাধাপ্রাপ্ত ধমনীতে একটি স্টেন্ট বসানো হয়। ওই স্টেন্টের সাহায্যে ধমনী খুলে যায় এবং রক্ত প্রবাহ স্বাভাবিক হয়।
  • করোনারি আর্টারি বাইপাস সার্জারি
    বাইপাস সার্জারির সময় চিকিৎসক বাধাপ্রাপ্ত ধমনীর পাশে অস্ত্রোপচারের সাহায্যে শরীরের অন্য এলাকার সুস্থ ধমনী বা শিরা সেলাই করে রক্তপ্রবাহের নতুন একটি পথ খুলে দেবেন যাতে বাধাপ্রাপ্ত ধমনী এড়িয়ে রক্ত সঞ্চালন শুরু হয়।

লাইফস্টাইল ম্যানেজমেন্ট

হৃদযন্ত্রের বা হার্টের স্বাস্থ্যের উন্নতির জন্য জীবনশৈলীর (লাইফস্টাইল) পরিবর্তন সবচেয়ে কার্যকরী। ভবিষ্যতে হৃদরোগের ঝুঁকি কমাতে নিম্নলিখিত প্রক্রিয়াগুলি কাজে আসতে পারে:

  • প্রতিদিন ব্যায়াম করুন, যেমন দৌড়নো, একজায়গায় দৌড়নো (জগিং), সাঁতার কাটা, এবং যোগ ব্যায়াম করা, যা করলে শরীরে অক্সিজেন সরবরাহ ভালরকম বাড়ে এবং রক্তচাপ কমে। যে কোনও প্রক্রিয়া শুরু করার আগে চিকিৎসকের পরামর্শ জরুরি।
  • শরীরের ওজন স্বাস্থ্যকর রাখুন।
  • ধূমপান ছেড়ে দিন। কেউ ধূমপান করলে সেখান থেকে দূরে থাকুন।
  • সপ্তাহে 14 ইউনিটের বেশি মদ্যপান করবেন না।
  • খাদ্যে সোডিয়াম এবং স্নেহজাতীয় পদার্থ যেন কম থাকে। খাবারে ফল, সবজি, এবং ফাইবার বেশি থাকলে হার্ট ভাল থাকে।
  • নিয়মিত স্বাস্থ্য পরীক্ষা এবং কিছুদিন অন্তর রক্তচাপ পরীক্ষা করান।
  • কর্মক্ষেত্রে এবং বাড়িতে মানসিক চাপের ভারসাম্য বজায় রাখুন।

হার্ট অ্যাটাকে কি - What is Heart Attack in Bengali

হার্টে বা হৃদযন্ত্রে যে ধমনীসমূহের মাধ্যমে রক্ত প্রবাহিত হয় সেগুলি আটকে গেলে হৃদরোগ হয় যাকে অ্যাকিউট মায়োকার্ডিয়াল ইনফ্রাকশনও বলা হয়। এরকম আকস্মিকভাবে রক্ত সঞ্চালন বন্ধ হলে হার্টের পেশিতে প্রয়োজনীয় অক্সিজেন এবং পুষ্টি সরবরাহ ব্যাহত হয়, যার ফলে বুকে ব্যাথা শুরু হয় যার অন্য নাম অ্যানজাইনা।

সারা বিশ্বে বর্তমানে হৃদরোগ মহামারীর আকার নিয়েছে। বিশ্বের মানচিত্রে কার্ডিওভাসকুলার বা হৃদসম্বন্ধীয় রোগের কারণে মৃত্যুর সংখ্যা সবচেয়ে বেশি। শুধু মাত্র  2016 সালে হৃদরোগের কারণে 17.9  মিলিয়ন মৃত্যু হয়েছে, তার মধ্যে তিন চতুর্থাংশের মৃত্যু হয়েছে মধ্যবিত্ত মানুষের এবং উন্নতশীল দেশে। জীবনশৈলির পরিবর্তন এবং নগরায়ণের কারণে হৃদরোগের সংখ্যা বেড়েছে। প্রতি বছর ভারতে 0.5 মিলিয়ন মৃত্যু হয়, তার মধ্যে 20% হৃদরোগের কারণে।



তথ্যসূত্র

  1. World Health Organization [Internet]. Geneva (SUI): World Health Organization; Cardiovascular diseases
  2. MSDmannual professional version [internet].Acute Myocardial Infarction (MI). Merck Sharp & Dohme Corp. Merck & Co., Inc., Kenilworth, NJ, USA
  3. Gupta R, Mohan I, Narula J. Trends in Coronary Heart Disease Epidemiology in India. Ann Glob Health. 2016 Mar-Apr;82(2):307-15. PMID: 27372534.
  4. inay Rao, Prasannalakshmi Rao, Nikita Carvalho. Risk factors for acute myocardial infarction in coastal region of india: A case-control study . Volume 2, 2014. Department of Community Medicine, Father Muller Medical College, Mangalore; DOI: 10.4103/2321-449x.140229.
  5. Center for Disease Control and Prevention [internet], Atlanta (GA): US Department of Health and Human Services; Heart Disease Risk Factors
  6. National Heart, Lung, and Blood Institute [Internet]: U.S. Department of Health and Human Services; Heart Attack
  7. National Health Service [Internet]. UK; Complications - Heart attack

হার্ট অ্যাটাকে জন্য ঔষধ

হার্ট অ্যাটাকে के लिए बहुत दवाइयां उपलब्ध हैं। नीचे यह सारी दवाइयां दी गयी हैं। लेकिन ध्यान रहे कि डॉक्टर से सलाह किये बिना आप कृपया कोई भी दवाई न लें। बिना डॉक्टर की सलाह से दवाई लेने से आपकी सेहत को गंभीर नुक्सान हो सकता है।

হার্ট অ্যাটাকে की जांच का लैब टेस्ट करवाएं

হার্ট অ্যাটাকে के लिए बहुत लैब टेस्ट उपलब्ध हैं। नीचे यहाँ सारे लैब टेस्ट दिए गए हैं:

टेस्ट का नाम