ভিটামিন এ এর অভাব - Vitamin A Deficiency in Bengali

Dr. Anurag Shahi (AIIMS)MBBS,MD

May 03, 2019

July 31, 2020

ভিটামিন এ এর অভাব
ভিটামিন এ এর অভাব

ভিটামিন এ এর অভাব কি?

ভিটামিন এ, যেটা রেটিনল নামেও জানা যায়, যা একটা ফ্যাট-সল্যুবল বা দ্রবণীয় ভিটামিন। এটা ফোটোরিসেপ্টিভ আই পিগমেন্ট তৈরীতে দরকার পড়ে, যেটাকে রোডোপসিন নামে জানা যায়, যা সাধারণ রঙিন দৃষ্টি এবং রাতের দৃষ্টি জন্য প্রয়োজন হয়। এছাড়াও, ভিটামিন এ কোষের পূর্ণতা এবং বৃদ্ধিতে, রোগ প্রতিরোধ কার্য ও ভ্রূণের গঠনে সাহায্য করে। ভিটামিন এ এর অভাবে আরো অনেক গুরুতর রোগের সৃষ্টি হয়, বিশেষকরে, চোখ ও চোখের দৃষ্টি সম্পর্কিত ব্যাপারে।

এর প্রধান লক্ষণ ও উপসর্গগুলো কি কি?

যেহেতু ভিটামিন এ নানান কার্য সম্পন্ন করে, সেইকারণে, এর অভাবে নানান অবস্থা ও বহু-পদ্ধতিগত উপসর্গের সৃষ্টি হয়। এই লক্ষণ ও উপসর্গগুলোর মধ্যে রয়েছে:

  • রাতে দেখতে না পাওয়া - কম আলোতে এবং রাতের বেলায় দেখতে না পাওয়া (এটা ভিটামিন এ এর অভাবের গোড়ার দিকের উপসর্গগুলোর মধ্যে একটি)।
  • জেরোফথালমিয়া - চোখ কেরাটিনাইজড হয়ে যায়, এতে কনজাঙ্কটিভা (চোখের কর্নিয়ার পাতলা স্বচ্ছ আচ্ছাদন) ও কর্নিয়া শুষ্ক এবং ঘন হয়ে যায়। এর জন্য এমন কি দিনের বেলায়ও দেখতে অসুবিধা হয়।
  • বাইটট দাগ - কনজাঙ্কটিভাতে খারাপ এপিথেলিয়াল কোষ জমা হতে থাকে।
  • কেরাটোম্যালাসিয়া - কর্নিয়া অস্পষ্ট এবং ক্ষয়প্রাপ্ত হয়। এটা একটা স্থায়ী ক্ষত।
  • অনাক্রম্য প্রতিক্রিয়া নষ্ট হয়।
  • ত্বক-কেরাটিনাইজড হয়ে যায়, ফলস্বরুপ শুষ্ক, আঁশযুক্ত ত্বক দেখা দেয় এবং চুলকানি হয়।

ভিটামিন এ এর অভাবের উপসর্গগুলো ছোট বাচ্চাদের বেশী দেখা যায়, এবং ওদের বৃদ্ধিও কম হয়। খুব বেশী অভাব হলে সেই বাচ্চার মৃত্যুও হতে পারে।

এর প্রধান কারণগুলো কি কি?

ভিটামিন এ এর অভাব প্রাথমিকভাবে ভিটামিন এ কম গ্রহণ করলে ঘটে অর্থাৎ ভুল খাদ্যাভ্যাসের কারণে সঠিক খাবারের অভাবে বা ভিটামিন এ তে ভরপুর খাবার না খাওয়ার কারণে। এছাড়াও, ভিটামিন এ এর গৌণ অভাব ঘটে, প্রোভিটামিন এ এর পাওয়া মুস্কিল হয়ে যাওয়া এবং শোষণ, মজুদ হওয়া ও সরবরাহে বাধার কারণে। ভিটামিন এর শোষণ ঘটে প্যানক্রিয়াটিক অভাবে, সেলিঅ্যাক অসুখে, তীব্র ডায়রিয়াতে, পিত্ত নালীর বাধাতে, লিভার সিরোসিসে,  সিস্টিক ফাইব্রোসিসে ও জিয়ারডিয়াসিসের জন্য।

এটি কিভাবে নির্ণয় ও চিকিৎসা করা হয়?

সাধারণত, একটি সম্পূর্ণ চিকিৎসার ইতিহাস এবং ক্লিনিকাল পরীক্ষা, ভিটামিন এ এর অভাবের নির্ণয়ের ইঙ্গিত দেয়। ক্লিনিকাল পরীক্ষাগুলি ছাড়াও যেগুলি করা হয়, সেগুলি হল,

  • সিরাম রেটিনল মাত্রা - এটা সাধারণত নির্ণয় নিশ্চিত করতে সাহায্য করে।
  • অফথ্যালমোলজিক মূল্যায়ন - অফথ্যালমোস্কোপের সাথে মূল্যায়ন এবং স্লিট ল্যাম্প বায়োমাইক্রোস্কপি এবং কনফোকাল মাইক্রোস্কপি চোখের অবস্থার নির্ণয় নিশ্চিত করতে সহায়তা করতে পারে।
  • থেরাপিউটিক ট্রায়াল - ভিটামিন এ সম্পূরক সরবরাহের পরে উপসর্গগুলির উন্নতি, এটি নিশ্চিত করতে পারে যে ভিটামিন এ এর অভাব ছিল যা এই সমস্ত উপসর্গগুলি সৃষ্টি করেছিল।

ভিটামিন এ অভাবের চিকিৎসা, ভিটামিন এ সমৃদ্ধ খাদ্যের গ্রহণ বাড়িয়ে বা ভিটামিন এ-এর জন্য মৌখিক বা ইন্ট্রাভেনাস সম্পূরক ব্যবহারের দ্বারা করা হতে পারে।

  • ভিটামিন এ এর জন্য খাবার - ডিমের কুসুম, কড লিভার তেল, মাখন, চেড্ডার চীজ, গাজর, পালংশাক, কেল বা পাতা কপি, বাঁধাকপি, ড্যান্ডেলিয়ন, লাল মরিচ ইত্যাদি।
  • সম্পূরক: মৌখিক বা ইনজেকশনের মাধ্যমে ভিটামিন এ (ভিটামিন এ প্যালমিটেট) ও এই অভাব মেটাতে সাহায্য করে।



তথ্যসূত্র

  1. Merck Manual Professional Version [Internet]. Kenilworth (NJ): Merck & Co. Vitamin A
  2. American Academy of Ophthalmology. [internet] California, United States; What Is Vitamin A Deficiency?.
  3. United Nations Children's Fund. Vitamin A New York, United States. [Internet]
  4. Raul Martin. Cornea and anterior eye assessment with slit lamp biomicroscopy, specular microscopy, confocal microscopy, and ultrasound biomicroscopy. Indian Journal of Opthalmology, 2018, Volume : 66, Issue: 2, Page: 195-201

ভিটামিন এ এর অভাব ৰ ডক্তৰ

Dr. Tanmay Bharani Dr. Tanmay Bharani Endocrinology
15 वर्षों का अनुभव
Dr. Sunil Kumar Mishra Dr. Sunil Kumar Mishra Endocrinology
23 वर्षों का अनुभव
Dr. Parjeet Kaur Dr. Parjeet Kaur Endocrinology
19 वर्षों का अनुभव
Dr. M Shafi Kuchay Dr. M Shafi Kuchay Endocrinology
13 वर्षों का अनुभव
অনেক সময় অডিও র জন্য মুহূর্তের বিলম্ভ হতে পারে

ভিটামিন এ এর অভাব জন্য ঔষধ

ভিটামিন এ এর অভাব के लिए बहुत दवाइयां उपलब्ध हैं। नीचे यह सारी दवाइयां दी गयी हैं। लेकिन ध्यान रहे कि डॉक्टर से सलाह किये बिना आप कृपया कोई भी दवाई न लें। बिना डॉक्टर की सलाह से दवाई लेने से आपकी सेहत को गंभीर नुक्सान हो सकता है।