মেইল হাইপোগোনাডিজম - Male Hypogonadism in Bengali

Dr. Ayush PandeyMBBS,PG Diploma

May 10, 2019

March 06, 2020

মেইল হাইপোগোনাডিজম
মেইল হাইপোগোনাডিজম

পুরুষদের হাইপোগোনাডিজম কি?

পুরুষদের হাইপোগোনাডিজম একটা দশা যেখানে টেস্টোস্টেরন হরমোনের (এই হরমোনটি পুরুষদের বয়ঃসন্ধিতে তাদের শারীরীক বৃদ্ধি ও গঠনে সাহায্য করে) মাত্রা কম থাকে, কারণ শরীর যথেষ্ট মাত্রায় এই হরমোন সৃষ্টি করতে পারে না। এই ব্যাধিতে প্রভাবিত ব্যাক্তির উপর এই দশা অনেক বড় প্রভাব ফেলে। এটা একটা যৌণ হরমোন হওয়া ছাড়াও টেস্টোস্টেরন গম্ভীরভাবে দায়ী থাকে যৌনতা, জ্ঞানীয় ও শরীরের অন্যান্য ক্রিয়ার জন্য (এর অন্তর্গত মস্তিষ্ক, বিপাকীয় ক্রিয়া এবং ভাস্কুলার সিস্টেম) এবং উন্নতির জন্য।

হাইপোগোনাডিজম দুই প্রকারের হয়, যেমন, প্রাথমিক (টেস্টিকলসে) এবং গৌন (হাইপোথ্যালামাস এবং পিটুইটারী গ্রন্থিতে)।

এর প্রধান লক্ষণ এবং উপসর্গগুলো কি কি?

হাইপোগোনাডিজমের প্রধান লক্ষণ এবং উপসর্গগুলো হলো

  • রক্তাল্পতা
  • পেশী নষ্ট।
  • হাড়ের ঘনত্ব বা হাড়ে খনিজ কমে যাওয়া বা অস্টিওপোরোসিস।
  • পেটে চর্বি।
  • গরম আকস্মিক প্রবাহ।
  • শরীরে লোম কমে যাওয়া।
  • এপিফিজিল ক্লোজার দেরী হওয়া।
  • গাইনীকোমাস্টিয়া।
  • যৌনগত কর্মহীনতা, যার অন্তর্গত
    • সোজা হতে অক্ষম
    • শক্তি, মনোবল, লিবিডো, পেনাইল সংবেদনশীলতা, বা বীর্যগননা কম হওয়া।
    • প্রচন্ড উত্তেজনার লক্ষে পৌঁছাতে অক্ষম।
    • ছোট টেস্টেস।
    • হতাশা বা বিরক্তি বাড়া
    • মনোযোগে অসুবিধা।
    • কোলেস্টেরলের মাত্রায় পরিবর্তন।

এর প্রধান কারণগুলো কি কি?

প্রাথমিক হাইপোগোনাডিজমের প্রধান কারণগুলো হলো:

  • বৃদ্ধ বয়স।
  • ক্লিনেফেল্টার'স সিনড্রোম।
  • মাম্পস অরচাইটিস।
  • হিমোক্রোমাটোসিস।
  • আহত বা অনুন্নত টেস্টিকল।
  • ক্যান্সারের চিকিৎসা কেমোথেরাপী বা রেডিয়েশন থেরাপী সহ।

গৌন হাইপোগোনাডিজমের প্রধান কারণগুলো হলো

  • ওজন বেশী
  • পিটুইটারী গ্রন্থিতে গড়বড়।
  • চাপের প্রভাবে হাইপারকর্টিসোলিজম।
  • এইচআইভি/এইডস।
  • কালমানন সিনড্রোম।
  • ব্যাধি যেমন টিউবারকুলোসিস, সার্কোডায়োসিস, হিস্টিওসাইটোসিস।
  • কিছু ওষুধ যেমন অপিয়েট ব্যাথার ওষুধ এবং হরমোন।

এটি কিভাবে নির্ণয় ও চিকিৎসা করা হয়?

এই ব্যাধির উপসর্গের উপর নির্ভর করে চিকিৎসকের দ্বারাই এর নির্ণয় সম্ভব হয় এবং নিম্নলিখিত পরীক্ষাগুলোর পরামর্শ দেওয়া হয়:

  • হরমোনের পরীক্ষা।
  • সেরাম টেস্টোস্টেরন বা মুক্ত টেস্টোস্টেরন।
  • গৌন হাইপোগোনাডিজমের জন্য সেরাম লিউটেনাইজিং হরমোন (এলএইচ) এবং ফলিকল স্টিমুলেটিং হরমোন (এফএসএইচ)।
  • বীর্য বিশ্লেষণ।
  • পিটুইটারী ইমেজিং।
  • টেস্টিকিউলার বায়োপসি।
  • জিনগত পরীক্ষা।

চিকিৎসার প্রথম পর্ব হলো টেস্টোস্টেরন বদলানোর চিকিৎসা, যেটা অবশ্যই 300-800 এনজি/ডিএল টেস্টোস্টেরন সরবরাহ করে। এটা এইরকম হতে পারে:

  • একটা ট্রান্সডারমাল প্যাচ যেটা 24 ঘন্টা সময়ে অনবরত টেস্টোস্টেরন সরবরাহ করে।
  • বাক্কাল টেস্টোস্টেরন গুলি, যেটা টেস্টোস্টেরনের পালসাটাইল মুক্তিতে ব্যবহৃত হয়।
  • একটা ইমপ্ল্যান্টেবল পেলেট, যেটা অস্ত্রোপচারে স্থাপিত হয় ধীরগতিতে নিঃসরণ ঠিক করার জন্য।
  • টপিকাল জেল, যেটা ব্যবহার করা হয় দীর্ঘস্থায়ী সেরাম টেস্টোস্টেরনের উপরে ওঠানোর জন্য।
  • ইন্ট্রামাস্কুলার ইন্জেক্সন ব্যবহৃত হয় দীর্ঘকালীল শোষনের জন্য যেটা তেলের মধ্যে ডোবানো থাকে।
  • মৌখিক টেস্টোস্টেরন গুলি, বর্তমানে ভারতে পাওয়া যায় না।



তথ্যসূত্র

  1. Peeyush Kumar. et al. Male hypogonadism: Symptoms and treatment. J Adv Pharm Technol Res. 2010 Jul-Sep; 1(3): 297–301. PMID: 22247861.
  2. Christina Carnegie. Diagnosis of Hypogonadism: Clinical Assessments and Laboratory Tests. Rev Urol. 2004; 6(Suppl 6): S3–S8. PMID: 16985909.
  3. MedlinePlus Medical Encyclopedia: US National Library of Medicine; Hypogonadism.
  4. European Association of Urology. [Internet]. Arnhem, Netherlands; EAU Guidelines on Male Hypogonadism.
  5. American Academy of Family Physicians. [Internet]. Leawood,Kansas, United States; Testosterone Therapy: Review of Clinical Applications.

মেইল হাইপোগোনাডিজম ৰ ডক্তৰ

Pallavi Tripathy Pallavi Tripathy General Physician
3 वर्षों का अनुभव
Dr Sarath Dr Sarath General Physician
Dr. Mukesh Prajapat Dr. Mukesh Prajapat General Physician
3 वर्षों का अनुभव
Dr. Hitesh Suthar Dr. Hitesh Suthar General Physician
2 वर्षों का अनुभव
অনেক সময় অডিও র জন্য মুহূর্তের বিলম্ভ হতে পারে

মেইল হাইপোগোনাডিজম জন্য ঔষধ

মেইল হাইপোগোনাডিজম के लिए बहुत दवाइयां उपलब्ध हैं। नीचे यह सारी दवाइयां दी गयी हैं। लेकिन ध्यान रहे कि डॉक्टर से सलाह किये बिना आप कृपया कोई भी दवाई न लें। बिना डॉक्टर की सलाह से दवाई लेने से आपकी सेहत को गंभीर नुक्सान हो सकता है।