myUpchar प्लस+ के साथ पूरेे परिवार के हेल्थ खर्च पर भारी बचत

সারাংশ

নাক থেকে রক্তক্ষরণ, চিকিৎসার পরিভাষায় এপিস্ট্যাক্সিস নামে পরিচিত, সাধারণতঃ নির্দোষ (ক্ষতি করেনা এমন) এবং বেশির ভাগ মানুষের ক্ষেত্রে খুব একটা গুরুতর অবস্থা নয়। এটা শিশুদের এবং 50 বৎসর বয়সের উপরের মানুষদের ক্ষেত্রে বেশি দেখা যায়। হিমোফিলিয়ার মত রক্তপাত এবং রক্ত জমাট বাঁধার ব্যাধি থাকা লোকদের ছাড়া, নাক থেকে রক্তক্ষরণ বয়ঃসন্ধিকালের পরে খুব কমই দেখা যায়। নাক থেকে রক্তক্ষরণ সাধারণভাবে নাকের ডগার (সামনের দিকের এলাকা) কাছে নাকের ভিতর থেকে ঘটে।     

নাকের মধ্যে শুকনোভাব; ঠাণ্ডা শুষ্ক বাতাসের প্রভাবে আসা যেমন শীতকালে; ঘন ঘন নাক-খোঁটার দ্বারা সৃষ্ট আঘাত, বিশেষ করে শিশুদের ক্ষেত্রে; মানসিক আঘাত; সাইনুসাইটিস (সাইনাসের প্রদাহ); এবং নাসাসংক্রান্ত বৃদ্ধি (নাকের ভিতরের পিণ্ড) হচ্ছে নাক থেকে রক্তপাতের সবচেয়ে পরিচিত কারণগুলির কয়েকটি। অন্যান্য কম দৃষ্ট (দেখা), সমগ্র দেহযন্ত্রের বা গভীরে থাকা কারণগুলি যেগুলির অবিলম্বে চিকিৎসাগত মনোযোগের দরকার তার মধ্যে অন্তর্ভুক্ত উচ্চ রক্তচাপ; কোনও টিউমার; নাকের ভিতরের বিভাজক দেয়ালে অস্বাভাবিকতা (উদাহরণস্বরূপঃ নেজাল সেপ্টাল ডিফেক্ট); হাড়ের গঠনে বিকৃতি; বংশগতভাবে পাওয়া রক্ত জমাট বাঁধার সঙ্গে সম্পর্কিত ব্যাধি, যেমন হিমোফিলিয়া এ এবং বি; এবং ভন উইলিব্র্যান্ড ডিজিজ।        

নাক থেকে রক্তক্ষরণ সাধারণতঃ বেদনাহীন যদি না আঘাতের সাথে সম্পর্কিত হয়। উচ্চ রক্তচাপ, তরল জমার কারণে হার্ট বিকলতা কিংবা আঘাতের কারণে যখন নাক থেকে রক্তক্ষরণ ঘটে তখন মাথাধরা, ব্যথা এবং অন্যান্য উপসর্গগুলি উপস্থিত থাকতে পারে। কোনও নির্দিষ্ট কারণ ছাড়া নাক থেকে রক্তক্ষরণের বেশির ভাগ ক্ষেত্রে ওষুধের দরকার হয়না এবং শুধুমাত্র প্রথাগত চিকিৎসার সাহায্যেই সেরে যেতে পারে। ডাক্তাররা সাধারণতঃ নাকের রক্তক্ষরণ সামলান নাক টেপার দ্বারা চাপ প্রয়োগ করে (নাকের সেতু বা উঁচু জায়গার নীচে), নেজাল প্যাক, এবং স্যালাইন (লবণাক্ত) দ্রবণের সাহায্যে। যখন নেজাল প্যাকিং এবং অন্যান্য প্রথাগত চিকিৎসা ব্যবস্থা রক্তপাত বন্ধ করতে ব্যর্থ হয় তখন কটেরাইজেশন  (রক্তপাত বন্ধ করার জন্য ক্ষতস্থানটি পুড়িয়ে দিয়ে সেটা বার করে বা বন্ধ করে দেওয়ার চিকিৎসাগত পদ্ধতি) প্রয়োগ করা হয়। বিশেষ কোনও কারণে নাক থেকে রক্তক্ষরণের জন্য অন্তর্নিহিত কারণগুলির (উদাহরণস্বরূপ উচ্চ রক্তচাপ) চিকিৎসার জন্য দরকার ওষুধ। যখন মেডিক্যাল এবং প্রথাগত চিকিৎসাগুলির পরেও নাক থেকে রক্তপাত বন্ধ করায় ব্যর্থ হয় এবং যখন আরও বড় ধমনীগুলি থেকে রক্তপাত ঘটে যেগুলি নাকে রক্ত সরবরাহ করে তখন অস্ত্রোপচারের পরামর্শ দেওয়া হয়ে থাকে।      

  1. নাক দিয়ে রক্ত পড়া এর চিকিৎসা - Treatment of Nosebleed in Bengali
  2. নাক দিয়ে রক্ত পড়া জন্য ডাক্তার

নাক দিয়ে রক্ত পড়া এর চিকিৎসা - Treatment of Nosebleed in Bengali

নাক থেকে রক্তক্ষরণের জন্য চিকিৎসার মধ্যে আছে অন্তর্নিহিত কারণের চিকিৎসা দ্বারা রক্তপাত নিয়ন্ত্রণ করা। 

রক্তক্ষরণ নিয়ন্ত্রণ

মেডিক্যাল সহায়তা নেবার আগে নাক থেকে রক্তপাত সাধারণতঃ বাড়িতে নেওয়া কয়েকটা সহজ পদক্ষেপের সাহায্যে বন্ধ হয়। এগুলির মধ্যে রয়েছে সোজা বসে থাকার সময় নাকের ডগা 5 থেকে 10 মিনিট ধরে টেপার দ্বারা চাপ প্রয়োগ করা। বসে থাকার সময় মাথাটা পিছন দিকে হেলাবেন না কারণ রক্ত এয়ার-পাইপ বা শ্বাসনালীর মধ্যে উল্টোদিকে প্রবাহিত হতে পারে। নাক 20 মিনিট ধরে টিপে রাখার পরেও যদি রক্তপাত বন্ধ না হয় তখন মেডিক্যাল সহায়তা জরুরি। এছাড়া, নাকের উপর আইস প্যাক (বরফের প্যাক) প্রয়োগও রক্তপাত নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে।

যদি আগের ব্যবস্থাগুলি রক্তপাত বন্ধ করতে ব্যর্থ হয় তখন ডাক্তারের দ্বারা নীচের পদক্ষেপগুলি গ্রহণ করা যেতে পারেঃ  

  • এপিনেফ্রিন দ্রবণের সাথে (একটা ভাসোকন্সট্রিক্টর যা রক্তবাহী নালীগুলির সংকোচন ঘটায়) একটা তুলোর গজ (মেডিক্যাল ড্রেসিং-এর [পট্টি বাঁধা] জন্য তুলোর তন্তুর একটা সূক্ষ্ণ জাল দিয়ে তৈরি পট্টি) এবং অনুভূতিনাশক এজেন্ট (লিডোকেইন) রক্তপাতের উৎসের উপর চাপ দিয়ে স্থাপন করা হয়। বিকল্পভাবে, রক্তক্ষরণ বন্ধ করতে নাকের গর্ত প্যাক করার জন্য একটা শোষণযোগ্য জেলাটিন ফোম অথবা অক্সিডাইজড সেলুলোজ ব্যবহার করা হয়। নাকের সামনের দিকে রক্তক্ষরণের বেশির ভাগ ক্ষেত্রে এটা রক্তপাত বন্ধ করে।       
  • সিলভার নাইট্রেট নামে একটা রাসায়নিক রক্তক্ষরণের জায়গাটায় প্রয়োগ করা হয় সেই জায়গাটার গর্ত বন্ধ করতে এবং রক্তপাত বন্ধ করার জন্য। এই প্রক্রিয়াকে বলে কেমিক্যাল কটেরাইজেশন। 
  • একটা নেজাল প্যাকিং (নাক মোড়ক দিয়ে বেঁধে দেওয়া) তখন করা হয় যখন উপরে-উল্লিখিত ব্যবস্থাগুলি রক্তপাত বন্ধ করতে ব্যর্থ হয়। এতে, একটা ফিতার গজ পেট্রোলিয়াম জেলি কিংবা একটা জীবাণু-প্রতিরোধক মলম দিয়ে ভেজানো হয় এবং নাকের গহ্বর ভরার জন্য পরতের (লেয়ার) রূপে নাকের মধ্যে স্থাপন করা হয়। দৃঢ়ভাবে চেপে দেওয়া নেজাল প্যাক নাকের মধ্যে তিন থেকে পাঁচ দিন ধরে রেখে দেওয়া হয় নিশ্চিত করতে যে একটা ভালোভাবে তৈরি চাপ প্রতিষ্ঠিত হয়েছে এবং রক্তপাত সম্পূর্ণভাবে বন্ধ হয়েছে।  
  • একটা একই ধরণের নেজাল প্যাক একটা ক্যাথেটার ব্যবহার করে ফ্যারিংস-এর মধ্যে (নাক এবং মুখের পিছনের পর্দার আস্তরণ দেওয়া গহ্বর) ঢোকানো যেতে পারে। 
  • নাকের পিছনদিকে রক্তপাত বন্ধ করতে বিশেষভাবে তৈরি বেলুন সরঞ্জাম ব্যবহার করা যেতে পারে।
  • নাক থেকে রক্তক্ষরণের বেদনা এবং অন্যান্য অস্বস্তিকর উপসর্গগুলি কমাবার জন্য নাকের পিছনদিক (পিছনের এলাকা) গরম জলের অবিরাম প্রবাহ দিয়ে সেচন করা যেতে পারে। 
  • বৃহত্তর রক্তবাহী নালীগুলি (আভ্যন্তরীণ চোয়ালের ধমনী বা নাকের গোড়ায় চতুষ্কোণাকৃতি ধমনী) থেকে রক্তক্ষরণ সনাক্ত করার পর অস্ত্রোপচার সম্পাদন করা যেতে পারে। অস্ত্রোপচারগত প্রক্রিয়াগুলির মধ্যে আছে ধমনীগত বন্ধ্যাকরণ (রক্তপ্রবাহ বন্ধ করার জন্য ধমনী বেঁধে রাখা) এবং অ্যাঞ্জিওগ্রাফিক আর্টারিয়াল এম্বোলাইজেশন (ধমনীর ভিতরে একটা ঘনীভূত পিণ্ড বা বিশেষ ক্ষুদ্র কণা ঢুকিয়ে ধমনীতে রক্তপ্রবাহ বন্ধ করা)।  
  • বংশগত রক্তপাতের ব্যাধিগুলিতে যেগুলি দুরারোগ্য, যেমন হেমোরেজিক টেল্যাঞ্জিয়েক্টেসিয়া, একটা লেজার থেরাপি, ইস্ট্রোজেন থেরাপি, এম্বোলাইজেশন, এবং সেপ্টোডার্মাটোপ্ল্যাস্টি (নাকের পর্দায় শ্লৈষ্মিক ঝিল্লির প্রতিস্থাপন) ব্যথা উপশম করার জন্য সম্পাদন করা যেতে পারে। 
  • সার্বিক কারণগুলির জন্য চিকিৎসা
    • উচ্চ রক্তচাপ, যা নাক থেকে রক্তপাত ঘটায়, তার চিকিৎসার জন্য যথোপযুক্ত ওষুধ।
    • অ্যালার্জিগুলির চিকিৎসা করার জন্য অ্যান্টিহিস্টামিন এবং অন্যান্য অ্যালার্জি প্রতিরোধক ওষুধ।
    • সাইনাসগুলিতে সংক্রমণ নির্মূল করার জন্য সঠিক অ্যান্টিবায়োটিকগুলি সাহায্য করতে পারে।

জীবনধারা সামলানো

বেশির ভাগ মানুষের ক্ষেত্রে বাড়িতে নাক থেকে রক্তক্ষরণ সামলানো সহজ। প্রথমবার নাক থেকে রক্তক্ষরণে কিংবা স্থানীয় আঘাতে অনুসন্ধান এবং চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে ভর্তির দরকার হয়না। বাড়িতে নিজের তত্ত্বাবধানের দ্বারা এগুলো সহজে সামলানো যেতে পারে। যাই হোক, ডাক্তারের সাথে  দেখা করা জরুরি যদিঃ     

  • নাকের রক্তক্ষরণ বন্ধ হচ্ছেনা এবং নাকের উপর চাপ প্রয়োগের (নাক টিপে ধরা) 20 মিনিট পরেও রক্তপাত অবিরাম হচ্ছে।  
  • নাকের রক্তক্ষরণের সঙ্গে রক্ত বা গাঢ় বর্ণের বমি দেখা যায়।
  • আপনি নাক থেকে রক্তক্ষরণের সাথে মাথাঘোরা, ফ্যাকাশেভাব, দুর্বলতা, শ্বাস-প্রশ্বাসে কষ্ট এবং মাথাধরা অনুভব করছেন। 
  • নাক থেকে রক্তক্ষরণ বন্ধ হয় এবং বারবার হাজির হয়।
  • 2 বৎসর বয়সের নীচের কোনও শিশুর ক্ষেত্রে নাক থেকে রক্তক্ষরণ দেখা যাচ্ছে।

বারবার ফিরে ফিরে নাক থেকে রক্তক্ষরণের ব্যবস্থাপনায় কিছু কৌশল যা সাহায্য করতে পারে সেগুলির মধ্যে আছে নীচে উল্লিখিতগুলিঃ

  • নাক থেকে রক্তক্ষরণের একটা আচমকা ঘটনার ক্ষেত্রে বিশেষতঃ যখন আপনি বাড়ি থেকে দূরে আছেন, একটা কর্ম পরিকল্পনা তৈরি করুন। ক্ল্যাম্প, পরিস্কার কাপড়ের টিস্যু সঙ্গে রাখুন যেগুলি রক্তপাত নিয়ন্ত্রণে ব্যবহার করা যেতে পারে।    
  • বাড়িতে একটা আইস প্যাক প্রস্তুত রাখুন, যা আপনি বাড়িতে থাকার সময় নাক থেকে রক্তক্ষরণ ঘটার ক্ষেত্রে নাকে প্রয়োগ করা যেতে পারে। 
  • ছোট ছোট বস্তুগুলো যা নাকের মধ্যে ঢোকানো হতে পারে, সেগুলো বাচ্চাদের থেকে দূরে রাখুন।
  • বাচ্চাদের শেখান তাদের নাক না খোঁটা বা তাদের নাক জোরে না ঝাড়ার জন্য যেহেতু এটা নাক থেকে রক্তক্ষরণের দিকে নিয়ে যেতে পারে।
  • শ্রমসাধ্য ব্যায়ামের বদলে মাঝারি ধরণের ব্যায়াম বেছে নিন।
  • বারবার নাক থেকে রক্তপাত হওয়া ব্যক্তিদের তাঁদের বাড়ির ভিতরের বাতাবরণ ঠাণ্ডা এবং আর্দ্র রাখা উচিত।
Dr. Yogesh Parmar

Dr. Yogesh Parmar

कान, नाक और गले सम्बन्धी विकारों का विज्ञान

Dr. Vijay Pawar

Dr. Vijay Pawar

कान, नाक और गले सम्बन्धी विकारों का विज्ञान

Dr. Ankita Singh

Dr. Ankita Singh

कान, नाक और गले सम्बन्धी विकारों का विज्ञान

আপনার অথবা আপনার পরিবারে কারোর কি এই রোগ আছে? দয়া করে একটা সমীক্ষা করুন এবং অন্যদের সাহায্য করুন।

और पढ़ें ...