পাঁজরে ব্যথা - Rib Pain in Bengali

Dr. Nadheer K M (AIIMS)MBBS

May 07, 2019

March 06, 2020

পাঁজরে ব্যথা
পাঁজরে ব্যথা
অনেক সময় অডিও র জন্য মুহূর্তের বিলম্ভ হতে পারে

পাঁজরে ব্যথা কি?

পাঁজরে ব্যথা একটা অবস্থা যেখানে বুকের একদিকে বা দুইদিকেই ব্যথা অনুভব হতে পারে। ব্যথা একই সময় একটা বা একটার বেশী পাঁজরে হতে পারে।

এর সঙ্গে জড়িত প্রধান লক্ষণ ও উপসর্গগুলি কি কি?

সাধারণ যে বুকে ব্যথা অনুভব হয় সেটা ছাড়াও পাঁজরে ব্যথার বিশেষ কিছু উপসর্গ থাকতে পারে যেমন:

  • কসটোকন্ড্রাইটিসের ক্ষেত্রে পাঁজরের কোমলাস্থিতে প্রদাহ বা ফোলা দেখা যায় এবংবুকে সংবেদনশীলতা লক্ষ করা যায়। ব্যথা অনুভব হয় উপরের দিকে পাঁজরে এবং স্টারনামের কাছে। যাইহোক, যখন এই ব্যথা গুরুতর হয়, তখন উপসর্গগুলোও খারাপ আকার নেয় এবং শরীরের নিম্নভাগে বারবার ব্যথার অনুভব হয়। এইরকম ক্ষেত্রে তৎক্ষনাৎ মেডিক্যাল হস্তক্ষেপ চাওয়া হয়।
  • অনুরূপভাবে, প্লিউরিসি বুকের দেওয়াল ও ফুসফুসের মাঝখানের লাইনিংএর একটা প্রদাহ। এই অবস্থার সবথেকে সাধারণ উপসর্গ হলো ব্যথা। সাধারণত এটা সমস্যাটা নিজের থেকেই ঠিক হয়ে যায় কিন্তু কিছু কিছু ক্ষেত্রে অ্যান্টিবায়োটিক চিকিৎসারও পরামর্শ দেওয়া হয়। এছাড়াও, ব্রঙ্কাইটিস, মানে বায়ুপথের প্রদাহের কারণেও পাঁজরের চারপাশে ব্যথা অনুভব হতে পারে।
  • ফুসফুসে ক্যান্সারের জন্যও ছাতিতে বা পাঁজরে ব্যথা হতে পারে যেটা কাশি বা হাসির সময় আরো বাজে আকার নেয়। এর ফলে সাঁ সাঁ আওয়াজ হতে পারে, কফ এবং শ্বাসের অভাব হতে পারে।
  • ফাইব্রোমায়ালজিয়ার ক্ষেত্রে, ব্যথাটা জ্বালা, ছুরি মারা বা হালকা ব্যথা প্রকারের হয়।

এর প্রধান কারণগুলো কি কি?

পাঁজরে ব্যথার কারণগুলো সাধারণ অবস্থা থেকে বিরল অবস্থার হয় যাতে বুকে ব্যথা বেড়ে যায় এবং সাথে পেটে ব্যথা আর জ্বরও হতে পারে। সাধারণ কারণগুলো হলো:

  • কসটোকন্ড্রাইটিস।
  • থোরাসিক স্পাইনে ব্যথা।
  • স্টার্নালিস সিনড্রোম- একটা বিরল সিনড্রোম যার বৈশিষ্ট্য হলো বুকের দেওয়ালে ব্যথা।
  • পাঁজর ভেঙে যায় কোনো আঘাতের জন্য, খেলতে গিয়ে, দূর্ঘটনায়, মারামারি করে বা পড়ে গিয়ে।

বিরল কারণগুলো হলো:

  • চাপে ভেঙে যাওয়া।
  • রিউমাটয়েড (হাড়ে বা গাঁটে ফোলা বা ব্যথা) কারণ।
  • ফাইব্রোমায়ালজিয়া- পেশীতে ব্যথা এবং শক্তভাব সাথে গাঁটে ব্যথা।
  • সিকল কোষ অ্যানিমিয়া- রক্তে অক্সিজেন বহন ক্ষমতা কমে যায় সিকল আকারের লাল রক্তকোষের জন্য।
  • পলিকন্ড্রাইটিস- কোমলাস্থির প্রদাহ বা ফোলা।
  • অস্টিওপোরোসিস- মেনোপসের পরে হাড়ের ঘনত্ব কমে যাওয়া।
  • লিউপাস এরিথেমাটোসাস- একটা অটোইমুন অবস্থা
  • স্লিপিং পাঁজর সিনড্রোম- একটা বিরল অবস্থা যেখানে নিচের পাঁজরের কোমলাস্থি স্লিপ করার জন্য ব্যথা হয়।
  • টিউমারস।
  • গলস্টোনস
  • প্লিউরিসি।
  • পাল্মোনারি এম্বোলিসিম

এটি কিভাবে নির্ণয় ও চিকিৎসা করা হয়?

উপরের অবস্থাগুলো উপসর্গের থেকে অনুমান করা যেতে পারে । চিকিৎসক প্রকৃত কারণ নির্ণয়ের জন্য আপনাকে বিভিন্ন পরীক্ষা করাতে বলতে পারেন যেমন বুকের এক্স-রে, সিটি স্ক্যান, এমআরআই, বা সি- রিঅ্যাক্টিভ প্রোটিন মাত্রা।

এগুলো ছাড়াও চিকিৎসক আরো বলতে পারেন:

  • অ্যানালজেসিক বা ব্যথা কমানোর ওষুধ।
  • সাময়িকভাবে শারীরিক চাপ এড়িয়ে চলা।
  • গরম/ঠান্ডা প্যাক থেরাপি।
  • ফিসিওথেরাপি।
  • কর্টিকোস্টেরয়েড থেরাপি।

           প্রচন্ড বাড়াবাড়ির ক্ষেত্রে, চিকিৎসক কোনো বিশেষ চিকিৎসা করেন যেমন ক্যান্সার বা ভাঙা                পাঁজরের ক্ষেত্রে।



তথ্যসূত্র

  1. National Health Service [Internet]. UK; Broken or bruised ribs.
  2. Department of Health Chest injuries and rib fractures. Government of Western Australia [Internet]
  3. Minerva Med. 1975 Aug 18;66(54):2679-89. PMID 1153118
  4. Australian Family Physician [Internet] The Royal Australian College of General Practitioners; Musculoskeletal chest wall pain
  5. Better health channel. Department of Health and Human Services [internet]. State government of Victoria; Rib injuries
  6. MedlinePlus Medical Encyclopedia: US National Library of Medicine; Ribcage pain
  7. healthdirect Australia. Costochondritis. Australian government: Department of Health

পাঁজরে ব্যথা ৰ ডক্তৰ

Dr. Tushar Verma Dr. Tushar Verma Orthopedics
5 वर्षों का अनुभव
Dr. Urmish Donga Dr. Urmish Donga Orthopedics
5 वर्षों का अनुभव
Dr. Sunil Kumar Yadav Dr. Sunil Kumar Yadav Orthopedics
3 वर्षों का अनुभव
Dr. Deep Chakraborty Dr. Deep Chakraborty Orthopedics
10 वर्षों का अनुभव
অনেক সময় অডিও র জন্য মুহূর্তের বিলম্ভ হতে পারে

পাঁজরে ব্যথা জন্য ঔষধ

পাঁজরে ব্যথা के लिए बहुत दवाइयां उपलब्ध हैं। नीचे यह सारी दवाइयां दी गयी हैं। लेकिन ध्यान रहे कि डॉक्टर से सलाह किये बिना आप कृपया कोई भी दवाई न लें। बिना डॉक्टर की सलाह से दवाई लेने से आपकी सेहत को गंभीर नुक्सान हो सकता है।