myUpchar प्लस+ सदस्य बनें और करें पूरे परिवार के स्वास्थ्य खर्च पर भारी बचत,केवल Rs 99 में -

সারাংশ

শ্বাসকষ্ট, যা চিকিৎসার পরিভাষায় ডিস্‌পনিয়া, হচ্ছে একটি একটি সাধারণ স্বাস্থ্য সমস্যা। ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতার ভিত্তিতে বিভিন্ন উপলব্ধি থেকে এই সমস্যা হতে পারে, এবং কিছু অভিজ্ঞতা ব্যক্তির মানসিক অবস্থার দ্বারা প্রভাবিত হয়। যেহেতু বহুবিধ কারণে শ্বাসকষ্ট হতে পারে, সে জন্য মূল কারণ নির্ণয় করা কঠিন হয়ে পড়ে। খুব দ্রুত মূল্যয়ন এবং নির্ণয় করা হলে তা কার্যকরী হওয়া সমস্যার হতে পারে। যদি রোগীর দেহে একাধিক রোগ বাসা বেঁধে থাকে তাহলে ডিস্‌পনিয়ার প্রকৃত কারণ খুব দুঃসাধ্য। যে সমস্ত কারণের জন্য ডিস্‌পনিয়া হতে পারে তার মধ্যে ফুসফুস এবং হৃদযন্ত্রের অসুস্থতা, নিউমোনিয়া, হৃদযন্ত্র বিকল হওয়া, চূড়ান্ত করোনারি সিনড্রোম, এবং অন্যান্য অবস্থা যেমন রক্তাল্পতা, স্থূলত্ব এবং মানসিক বিকারগ্রস্ততা থাকতে পারে।     

  1. শ্বাসকষ্ট কি - What is Shortness of Breath in Bengali
  2. শ্বাসকষ্ট এর উপসর্গ - Symptoms of Shortness of Breath in Bengali
  3. শ্বাসকষ্ট এর চিকিৎসা - Treatment of Shortness of Breath in Bengali
  4. শ্বাসকষ্ট জন্য ঔষধ
  5. শ্বাসকষ্ট ৰ ডক্তৰ

শ্বাসকষ্ট কি - What is Shortness of Breath in Bengali

শ্বাসকষ্ট বা ডিস্‌পনিয়া হচ্ছে একটি খুব সাধারণ ঘটনা যা 25%  মানুষের হয়ে থাকে। এটি হচ্ছে অন্যতম কারণ যার জন্য মানুষ চিকিৎসার সাহায্য নেন বা জরুরি ভিত্তিতে শারীরিক পরীক্ষা করান। বিভিন্ন অভ্যন্তরীন কারণে এটি হয়ে থাকে এবং কোনও সময়ে এটি জীবন বিপন্ন হওয়ার সঙ্কেত হতে পারে। বর্তমানে শ্বাসকষ্টের জন্য যাঁরা হাসপাতালের সাহায্য নেন তাঁদের প্রকৃত ঘটনা বা তাঁদের ভবিষ্যত সম্পর্কে তথ্যভাণ্ডার সীমিত। সুস্থ মানুষের ক্ষেত্রে ব্যায়ামের পর, মাটি থেকে অনেক উঁচুতে ওঠার পর, চূড়ান্ত তাপমাত্রায় বা স্থূলত্বের কারণে শ্বাসকষ্ট খুব স্বাভাবিক। যদি অন্য কোনও কারণে শ্বাসকষ্ট হয়,তাহলে সবচেয়ে উত্তম হচ্ছে চিকিৎসকের বা বিশেষজ্ঞের কাছে যাওয়া।

ডিস্‌পনিয়া (শ্বাসকষ্ট) কী?

অ্যামেরিকান থোরাসিক সোসাইটির অভিমত, শ্বাস নেওয়ার সময় অস্বাচ্ছন্দ্য, যার নির্দিষ্ট অনুভূতির তীব্রতার পার্থক্য আছে তাকে ডিস্‌পনিয়া বলা হয়। ডিস্‌পনিয়া বা শ্বাসকষ্ট বিভিন্ন কারণে ঘটতে পারে, যেমন ব্রঙ্কিয়াল অ্যাজমা থেকে শ্বাসরোধকারী অবস্থা, যেমন ডায়বিটিক কিটোয়াসিডোসিস। যদি কেউ অ্যাজমা আক্রান্ত হন বা যদি কারোর শ্বসনতন্ত্রে সমস্যা হয় তাহলে তিনি শ্বাসকষ্টের অভিযোগ করতে পারেন, যদিও বিভিন্ন কারণে। ডিস্‌পনিয়ার প্রকৃত কারণ খুঁজে বার করা সময়সাপেক্ষ এবং জটিল বিষয়, বিশেষত যখন একাধিক অঙ্গ বিকল হওয়ার আশঙ্কা।

শ্বাসকষ্ট এর উপসর্গ - Symptoms of Shortness of Breath in Bengali

ডিস্‌পনিয়ার উপসর্গ আকস্মিক (অ্যাকিউট) বা দীর্ঘস্থায়ী (ক্রনিক) হতে পারে। চূড়ান্ত শ্বাসকষ্ট কয়েক মিনিট থেকে কয়েক ঘণ্টা পর্যন্ত হতে পারে। তার সঙ্গে অন্যান্য উপসর্গ যেমন কাশি, জ্বর, র‌্যাশ, বা বুকে ব্যাথা দেখা যেতে পারে। দীর্ঘস্থায়ী (ক্রনিক) ডিস্‌পনিয়ার ক্ষেত্রে, দৈনিক কাজকর্ম করার সময়, যেমন এক ঘর থেকে আরেক ঘরে যাওয়ার সময় বা বসবার আসন থেকে হঠাৎ উঠে দাঁড়িয়ে পড়ার সময়, কোনও ব্যক্তির শ্বাসকষ্ট হতে পারে। নির্দিষ্ট অবস্থায় শারীরিক অবস্থার পরিবর্তন করা হলে দ্রুত শ্বাস নেওয়া বাড়তে কিংবা কমতে পারে। অন্যান্য উপসর্গের মধ্যে আছে:

  • শ্বাসকষ্টের অনুভূতি।
  • বুকে চাপ চাপ অনুভূতি.
  • শ্বাস নেওয়ার চেষ্টা (এয়ার হাঙ্গার)।
  • গভীরভাবে শ্বাস নিতে না পারা।
  • শব্দ করে (ঘড়ঘড় করে) শ্বাস নেওয়া।
  • দ্রুত, ছোট শ্বাস নেওয়া।
  • হাঁফ নিয়ে শ্বাস।
  • বিবর্ণ, ঠান্ডা, চটচটে ত্বক।
  • ঘাড়ের পেশি এবং বুকের ওপরের অংশ ব্যবহার করে শ্বাস নেওয়া।
  • দুশ্চিন্তা বা প্রবল আতঙ্ক। 

শ্বাসকষ্ট এর চিকিৎসা - Treatment of Shortness of Breath in Bengali

ডিস্‌পনিয়ার চিকিৎসা নির্ভর করে তার কারণের ওপর। কখনও কখনও এর মূল কারণ চিকিৎসা করে পুরোপুরি সেরে যায়, কিন্তু শ্বাসকষ্টের উপসর্গ থেকে সম্পূর্ণ মুক্তিলাভ হয় না।  কিছু ওষুধের পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া থাকে, সুতরাং সবচেয়ে ভাল হচ্ছে, ওষুধের ঝুঁকি এবং উপকার বিষয়ে চিকিৎসকের সঙ্গে পরামর্শ করে নেওয়া। চিকিৎসা পদ্ধতির মধ্যে থাকে:  

  • নেবুলাইজেশন, ইনহেলার এবং অক্সিজেন থেরাপি
    একটি যন্ত্র যা ব্রঙ্কোডাইলেটরের এরোসল প্রস্তুত করে (ওষুধ, যা বাতাস চলাচলের পথ খুলে দেয়)লাগানো হয়। ঘরোয়া নেবুলাইজার কিট পাওয়া যায়, যা নির্দেশমত ব্যবহার করা যেতে পারে। হাসপাতালে বা বাড়িতে অক্সিজেন সিলিন্ডার ব্যবহার করা যায়, যা শ্বাসকষ্ট উপশম করে। অ্যাজমার চূড়ান্ত আক্রমণে, ওষুধ-সহ ইনহেলার ব্যবহার করলে বাতাস চলাচলের পথ খুলে যায় এবং তৎক্ষণাৎ শ্বাসকষ্টের উপশম হয়।
  • ওষুধ
    যে কোনও ধরনের সংক্রমণ, যা থেকে কাশি এবং বুকের ব্যাথা হয়, তার চিকিৎসায় অ্যান্টিবায়োটিক্স গ্রহণের পরামর্শ দেওয়া হয়। মিউকাস তুলে ফেলবার জন্য এক্সপেকটোরেন্ট সাহায্য করে। শ্বাসকষ্টের উপশমের জন্য কিছু আফিং ভিত্তিক ব্যাথা কমানোর ওষুধ কাজ দেয়। সেগুলি শ্বাস নেওয়ার হার কমায় এবং ঘুমের উন্নতি ঘটায়। কিছু ও ওষুধ নিঃসরণ কমায় এবং বাতাস চলাচলের পথ খুলে দেয়। মাথায় রাখতে হবে যে প্রতিটি ওষুধই চিকিৎসকের নির্দেশমত গ্রহণ করতে হবে।
  • ফ্লুইড নিষ্কাশন
    প্লিউরাল বা পেরিকার্ডিয়াল উৎসরণের অবস্থায়, যে তরল জমা হয় তা নিষ্কাশন করে দিতে হবে যাতে শ্বাসকষ্টের উপশম হয়।
  • রেডিওথেরাপি
    যদি বাতাস চলাচলের পথে কোনও টিউমার হয়ে থাকার দরুন ডিস্‌পনিয়া হয়ে থাকে, তাহলে বাতাস চলাচলের পথে বাধা সৃষ্টকারী টিউমারের পিণ্ডটির আকার কমাতে রেডিওথেরাপি সাহায্য করতে পারে।
  • লেজার
    ফুসফুসের ক্যান্সারের অন্তিম পর্যায়ে অধিকাংশ সময়ে বাতাস চলাচলের পথে বাধার সৃষ্টকারী টিউমারের পিণ্ডটি বাদ দেওয়ার জন্য লেজার অস্ত্রোপচারের সুপারিশ করা হয়।     

জীবনশৈলী ব্যাবস্থাপনা

যাঁরা শ্বাসকষ্টে ভুগে থাকেন তাঁরা স্বাস্থ্যের উন্নতির জন্য নিম্নলিখিত পদক্ষেপ করতে পারেন:

  • ধূমপান ত্যাগ করুন
    ধূমপান ত্যাগ করলে ফুসফুসের রোগ এবং হৃদরোগ এবং ক্যান্সারের ঝুঁকি অনেকটাই এড়ানো সম্ভব হয়। ধূমপান ছাড়ানোর ক্লিনিকে যান, যেখানে ধূমপান প্রত্যাহারের কোনও প্রবল উপসর্গ ছাড়াই অভ্যাস কমাতে সাহায্য করা হয়। এই অভ্যাস থেকে বেরিয়ে আসতে নিকোটিন গাম বা প্যাচ ব্যবহার করেও উপকার পাওয়া যায়।
  • ক্ষতিকর দূষণের হাত থেকে বাঁচিয়ে চলুন
    এমন কোনও পরিবেশে না যাওয়াই শ্রেয় যেখানে আপনি এমন কোনও পরিস্থিতির সম্মুখীন হতে পারেন যা আপনার শ্বাসকষ্ট বাড়িয়ে দেবে। পরাগমিলনের সময় বাইরে যাবেন না, বা কোনও অ্যালার্জেন, গ্যাস, বিষাক্ত বস্তু বা পদার্থ, পরিবেশের দূষণ, যা থেকে ডিস্‌পনিয়া হয়ে থাকে তা থেকে দূরে থাকবেন।.
  • ওজন হ্রাস
    পরিশ্রম থেকে বিরত থাকার জন্য স্থূলত্ব বেড়ে যাওয়ায় শ্বাসকষ্ট শুরু হয়। সামান্য পরিশ্রমেই মানুষের শ্বাসকষ্ট হয়। কিছু শারীরিক অবস্থা যেমন হাইপোথাইরয়েডিজম থেকে ওজন বাড়ে এবং তা ডিস্‌পনিয়ার কারণ হয়ে দাঁড়ায়। এই কারণে, নিয়মিত ব্যায়াম করলে ওজন ঠিক থাকে এবং শ্বাসকষ্টের হাত থেকে বাঁচা যায়।
  • মাটি থেকে অনেক উঁচুতে পরিশ্রম এড়িয়ে চলুন
    মাটি থেকে অনেক উঁচুতে, 5000  ফুটের ওপরে বাতাসে অক্সিজেনের পরিমাণ কমে যায় যা থেকে সাধারণ মানুষেরও শ্বাস নিতে অসুবিধা হতে পারে। এই সব মানুষের শ্বাসকষ্ট বেড়ে যেতে পারে, অতএব তাঁদের অত উচ্চতায় ভ্রমণে না যাওয়াই উচিত।   অক্সিজেন সরবরাহ
    যদি কাউকে নিয়মিত বাইরে থেকে অক্সিজেন সরবরাহের ওপর নির্ভর করে থাকতে হয়, তাহলে নিশ্চিত করুন সিলিন্ডার যেন ঠিক সময়ে পরিবর্তন করা হয় এবং যন্ত্রপাতি যেন ঠিকভাবে কাজ করে।
Dr. Chintan Nishar

Dr. Chintan Nishar

ENT

Dr. K. K. Handa

Dr. K. K. Handa

ENT
21 वर्षों का अनुभव

Dr. Aru Chhabra Handa

Dr. Aru Chhabra Handa

ENT
24 वर्षों का अनुभव

Dr. Yogesh Parmar

Dr. Yogesh Parmar

ENT
5 वर्षों का अनुभव

শ্বাসকষ্ট की जांच का लैब टेस्ट करवाएं

Absolute Eosinophil Count - (AEC)

25% छूट + 5% कैशबैक

Allergy Panel Test (Comprehensive)

25% छूट + 5% कैशबैक

Immunoglobulin E (IGE)

25% छूट + 5% कैशबैक

CBC (Complete Blood Count)

25% छूट + 5% कैशबैक

Lipid Profile

25% छूट + 5% कैशबैक

শ্বাসকষ্ট জন্য ঔষধ

শ্বাসকষ্ট के लिए बहुत दवाइयां उपलब्ध हैं। नीचे यह सारी दवाइयां दी गयी हैं। लेकिन ध्यान रहे कि डॉक्टर से सलाह किये बिना आप कृपया कोई भी दवाई न लें। बिना डॉक्टर की सलाह से दवाई लेने से आपकी सेहत को गंभीर नुक्सान हो सकता है।

Medicine Name
Telekast L खरीदें
Triz Lm खरीदें
Vitaresp FX खरीदें
Montral खरीदें
Duolin खरीदें
Montek Lc खरीदें
Montina L खरीदें
Mont Lc खरीदें
Mont Lev खरीदें
Alt FM खरीदें
Montlevo खरीदें
Afineday खरीदें
SBL Marrubium vulgare Dilution खरीदें
Montolife Lc खरीदें
Allegra M खरीदें
Cetq Lm खरीदें
Montolife Lc Kid खरीदें
Montor LC खरीदें
Allermax Plus खरीदें
Montovent Lc खरीदें
Delpodine M खरीदें
Montysol खरीदें
Dewset Fm खरीदें
Ebast M खरीदें
Monzem LC खरीदें

References

  1. Dominik Berliner, Nils Schneider,Tobias Welte, Johann Bauersachs. The Differential Diagnosis of Dyspnea. Dtsch Arztebl Int. 2016 Dec; 113(49): 834–845. PMID: 28098068
  2. Mukerji V. Dyspnea, Orthopnea, and Paroxysmal Nocturnal Dyspnea. In: Walker HK, Hall WD, Hurst JW, editors. Clinical Methods: The History, Physical, and Laboratory Examinations. 3rd edition. Boston: Butterworths; 1990. Chapter 11.
  3. Am Fam Physician. 2012 Jul 15;86(2):173-180. [Internet] American Academy of Family Physicians; Causes and Evaluation of Chronic Dyspnea.
  4. Berliner D, Schneider N, Welte T, Bauersachs J. The differential diagnosis of dyspnea. Deutsches Ärzteblatt International. 2016 Dec;113(49):834. PMID: 28098068
  5. Merck Manual Professional Version [Internet]. Kenilworth (NJ): Merck & Co. Dyspnea
  6. Abernethy AP, Currow DC, Frith P, Fazekas BS, McHugh A, Bui C. Randomised, double blind, placebo controlled crossover trial of sustained release morphine for the management of refractory dyspnoea. . Bmj. 2003 Sep 4;327(7414):523-8. PMID: 12958109
और पढ़ें ...
ऐप पर पढ़ें