myUpchar प्लस+ के साथ पूरेे परिवार के हेल्थ खर्च पर भारी बचत

ডেন্টাল প্লাক কি?

ডেন্টাল প্লাক বলতে দাঁতের আশেপাশে এবং মধ্যে জমা হওয়া নরম ও আঠালো পদার্থকে বোঝায়। এটা দাঁত ক্ষয়ে যাওয়ার এবং মাড়ির সমস্যার অন্যতম সাধারণ কারণ। যেহেতু এই পদার্থটি সাদা রঙের হয়, তাই এটা প্রথমে সনাক্ত করা কঠিন হতে পারে। কিন্তু, যদি এটা একবার দাগ যুক্ত এবং হলদেটে হতে শুরু করে, তখন এটা দৃষ্টিগোচর হয়ে ওঠে এবং আপনার হাঁসির সৌন্দর্যকে নষ্ট করে দেয়।

এর প্রধান লক্ষণ এবং উপসর্গগুলো কি কি?

প্লাক হল একটা আঠালো সাদা জিনিস যা খুব একটা সহজে দেখা যায় না। তবে, সম্প্রতি যদি একজন দাঁত না মেজে থাকেন তবে এটা খোলা চোখে দেখা যেতে পারে। অনেকক্ষণ দাঁত না মাজার কারণে এটা হয়তো সকালে দেখা যেতে পারে। দাঁত মাজার সময় মাড়ির কাছে, সাদা আঠার মতো জিনিস বেড়িয়ে আসে।

এর প্রধান কারণগুলি কি কি?

ব্যাকটেরিয়া দ্বারা মুখের মধ্যে শর্করা/সুক্রোজ/কার্বোহাইড্রেটগুলি ভেঙ্গে গেলে প্লাক তৈরি হয় এবং সেগুলি জমতে থাকে এবং দাঁতে আটকে যায়।

যখন কার্বোহাইড্রেট-সমৃদ্ধ খাবারগুলি মুখ থেকে সঠিকভাবে পরিষ্কার করা না হয় তখন এটি হতে শুরু করে। মুখের মধ্যের অবশিষ্ট শর্করা, ব্যাকটেরিয়ার বৃদ্ধি করে। কার্বোহাইড্রেটের ভাঙ্গনের ফলে উৎপন্ন অ্যাসিড, উপ-পণ্য হিসাবে গঠিত হয়, যা দাঁতের এনামেলের দীর্ঘমেয়াদী ক্ষতি করতে পারে।

এটি কিভাবে নির্ণয় এবং চিকিৎসা করা হয়?

ডেন্টাল প্লাক বাড়িতে খুব সহজেই দেখা যেতে পারে। তাই এর নির্ণয় করা খুব সহজ। প্লাকের দাগ এবং এটি কোথায় জমা হয়েছে তা একজন খুব সহজেই বাড়িতে পরীক্ষা করে বলতে পারেন। এটি করার জন্য, একজন মুদির দোকান এবং ওষুধের দোকানে উপস্থিত লাল প্রকাশক ট্যাবলেট কিনতে পারেন। এর মধ্যে একটা চিবালে প্লাক চিহ্নিত হয়ে যায় এবং দেখা যায়।

দাঁতের ডাক্তারও প্লাকের নির্ণয় করার জন্য এই পরীক্ষা করতে পারেন।

দাঁতের প্লাক খুব সহজেই বাড়িতে সরিয়ে ফেলা যেতে পারে। প্লাক থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য প্রথমে দাঁত ফ্লস (রেশমের ফেঁসোর সাহায্যে দাঁত পরিষ্কার) করতে হবে এবং তারপর দাঁত মেজে ফেলতে হবে। যখন জমা হওয়া প্লাকের পরিমাণ কমে যায়, তখন সাধারণ দাঁত মাজাই বাকি প্লাক থেকে মুক্তি পেতে সাহায্য করে।

প্রতিরোধক ব্যবস্থাগুলির মধ্যে রয়েছে:

  • দিনে দুইবার দাঁত মাজুন।
  • ফ্লোরাইড-ভিত্তিক মাজন ব্যবহার করুন।
  • অ্যান্টি-ব্যাক্টেরিয়াল মাউথওয়াশ ব্যবহার করুন।
  • অবশিষ্ট খাবারের উপাদানগুলোকে বের করতে দাঁতের মাঝখানে ফ্লস করুন।
  • নিয়মিত দাঁতের চেক আপ করুন।
  • খাদ্যে চিনির মাত্রা কমিয়ে দিন।

আপনার অথবা আপনার পরিবারে কারোর কি এই রোগ আছে? দয়া করে একটা সমীক্ষা করুন এবং অন্যদের সাহায্য করুন।

और पढ़ें ...