myUpchar प्लस+ सदस्य बनें और करें पूरे परिवार के स्वास्थ्य खर्च पर भारी बचत,केवल Rs 99 में -

পেইন কিলারের পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া কি কি?

পেইন কিলার বা ব্যথা উপশমকারী প্রস্তুত হয় নারকোটিক্স নামক ওষুধ দ্বারা। এটি সাধারণত দেওয়া হয় কোন শারীরিক ব্যথা থেকে তাড়াতাড়ি রেহাই দেওয়ার জন্য। কিছু সাধারণ পেইন কিলার হল অ্যাস্পিরিন, ইবুপ্রোফেন এবং নাপ্রক্সেন। এগুলি খুবই সহজে ওষুধের দোকানে পাওয়া যায় এবং এগুলি কেনার জন্য কোন প্রেসক্রিপশনের দরকার পড়ে না। যাইহোক, দীর্ঘকাল ধরে এবং ঘন ঘন এই পেইন কিলারগুলো খেলে তার কিছু পার্শ্ব প্রতিক্রিয়াও থাকে।

এর প্রধান লক্ষণ এবং উপসর্গগুলো কি কি?

কিছু সাধারণ পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া যা অনুমোদিত পেইনকিলারের সাথে জড়িত তা হল:

উপরে উল্লেখিত উপসর্গগুলি দেখা দিতে পারে ওষুধ খাওয়ার পর পরই। কিছু ব্যক্তির ক্ষেত্রে, ওষুধের প্রভাব শুরু হওয়ার সাথে সাথেই, এর পার্শ্ব প্রতিক্রিয়াগুলি দেখা দিতে শুরু করে। যাইহোক, এই তাৎক্ষনিক পার্শ্ব প্রতিক্রিয়াগুলি দেখা দেওয়া সেইসকল ব্যক্তিদের জন্য স্বাভাবিক যারা পেইন কিলার ঘন ঘন খান না। পেইন কিলার দীর্ঘকাল ধরে খেলে, এই উপসর্গগুলি কম দেখা দেয় কিন্তু অন্য গুরুতর উপসর্গ দেখা দিতে পারে, যেমন:

  • আসক্তি
     পেইন কিলার ব্যবহার করার সব থেকে বড় ঝুঁকি হল হল বেশি ব্যবহার করা এবং আসক্তি। পেইন কিলার সাধারণত সেই ওষুধ দিয়ে বানানো হয় যা তৎক্ষণাৎ ব্যথা থেকে মুক্তি দেওয়ার জন্য তৈরী ও কিছুটা হলেও কেন্দ্রীয় স্নায়ুতন্ত্রকে অবশ করে দেয় এবং আনন্দময় অভিজ্ঞতা দান করে। যে ব্যক্তি ঘন ঘন পেইন কিলার ব্যবহার করেন তিনি আসক্ত হয়ে পড়েন এর দ্বারা এবং তাই, দরকার না পড়লেও ওষুধ খেতে থাকেন।
  • সহ্যশক্তি
     বার বার পেইন কিলার খেলে তা অনেক বেশি সহ্যশক্তি বাড়িয়ে তোলে এই ওষুধের প্রতি, এর মানে হল যে ওষুধ খাওয়ার মাত্রা আরও বাড়িয়ে দিতে হয় একই ফল পাওয়ার জন্য বা ওষুধ যাতে কার্যকারী হয় সেইজন্য।
  • হরমোনের অসামঞ্জস্য
     অতিরিক্ত পেইন কিলারের ব্যবহারে পুরুষদের মধ্যে টেস্টোস্টেরনের কম মাত্রা এবং মহিলাদের মধ্যে ইস্ট্রোজেনের কম মাত্রা পরিলক্ষিত হয়। এটি অন্য আরও সমস্যার কারণ হতে পারে যেমন হট ফ্ল্যাশ, অস্বাভাবিক মাসিকচক্র এবং নিম্ন লিবিডো্র সমস্যা।

এর প্রধান কারণগুলি কি কি?

এই ওষুধগুলি সাধারণত তাঁদেরই দেওয়া হয় যারা তীব্র ব্যথায় ভোগেন যাতে তারা তাড়াতাড়ি স্বস্তি পান। কিন্তু, কড়া ডোজের পেইন কিলার দেওয়া হয় সেইসব ব্যক্তিদের যাদের চরম অসুস্থতা আছে যেমন ক্যান্সার, যাতে তাদের ব্যথা লাঘব করা যায়। এর পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া হল স্নায়ুতন্ত্রের উপর অসাড়তার প্রভাব।

এটি কিভাবে নির্ণয় করা হয় এবং এর চিকিৎসা কি?

এই রোগ নির্ণয় করা যায় চিকিৎসাগত ইতিহাস জানার পর, শারীরিক পরীক্ষা করে এবং রক্তে পেইন কিলারের মাত্রা নিরূপণ করে। ডাক্তার সাধারণত উপদেশ দেন পেইনকিলারের ব্যবহার কমানো্র বা সম্পূর্ণভাবে এটি এড়িয়ে চলা এবং প্রাকৃতিক পদ্ধতি প্রয়োগ করে ব্যথার সাথে লড়াই করার জন্যে। প্রাকৃতিক খাদ্যদ্রব্য যেমন হলুদ এবং আদা হল প্রকৃতিগতভাবে প্রদাহনাশক এবং এগুলি ব্যথা কমাতে সাহায্য করে।

অন্যান্য উপায়গুলি হল, যোগাসন এবং ধ্যান করার অভ্যাস যার ফলে পেইন কিলারের উপর নির্ভরতা কমানো যায়।

  1. পেইন কিলারের পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া জন্য ঔষধ

পেইন কিলারের পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া জন্য ঔষধ

পেইন কিলারের পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া के लिए बहुत दवाइयां उपलब्ध हैं। नीचे यह सारी दवाइयां दी गयी हैं। लेकिन ध्यान रहे कि डॉक्टर से सलाह किये बिना आप कृपया कोई भी दवाई न लें। बिना डॉक्टर की सलाह से दवाई लेने से आपकी सेहत को गंभीर नुक्सान हो सकता है।

Medicine Name
Nalox खरीदें
Narcotan खरीदें
Nex खरीदें
Nex(Nel) खरीदें

References

  1. Cleveland Clinic. [Internet]. Cleveland, Ohio. The Down Side and Side Effects of Painkillers.
  2. MedlinePlus Medical Encyclopedia: US National Library of Medicine; Pain medications - narcotics.
  3. MedlinePlus Medical Encyclopedia: US National Library of Medicine; Pain Relievers.
  4. InformedHealth.org [Internet]. Cologne, Germany: Institute for Quality and Efficiency in Health Care (IQWiG); 2006-. Using medication: The safe use of over-the-counter painkillers. 2016 Apr 6 [Updated 2017 Aug 10].
  5. Better health channel. Department of Health and Human Services [internet]. State government of Victoria; Medicines and side effects.
और पढ़ें ...
ऐप पर पढ़ें