টক ঢেকুর (চুকা ঢেকুর) - Sour Burp in Bengali

Dr. Rajalakshmi VK (AIIMS)MBBS

May 03, 2019

July 31, 2020

টক ঢেকুর
টক ঢেকুর

টক ঢেকুর বা চোঁয়া ঢেকুর (চুকা ঢেকুর) কি?

টক ঢেকুর বা চোঁয়া ঢেকুর হল পেটে অতিরিক্ত গ্যাসের উপস্থিতির কারণে সালফারযুক্ত ঢেকুর। তাড়াতাড়ি করে খাওয়া, ধূমপান অথবা চ্যুইং গাম চিবানোর সময় অতিরিক্ত বাতাসও আমরা গিলে ফেলি, যার ফলে পেটে এই গ্যাস হয়। পেটে গ্যাস হয় এমন কিছু খাবার খেলেও তার থেকে এটা হতে পারে।

এর প্রধান লক্ষণ ও উপসর্গগুলি কি কি?

টক ঢেকুর সাধারণত রিফ্লাক্স রোগে আক্রান্ত ব্য়ক্তিদের মধ্যে দেখা যায়, সেজন্য বুকজ্বালা, পেটফাঁপা, গ্যাসের অনুভুতি, বারবার বাতকর্ম হওয়া, বমিভাব এবং মুখে দুর্গন্ধের মতো উপসর্গগুলি অনুভূত হয়। খাবার খাওয়ার পর উপসর্গ বেশ গুরুতর আকার নিতে পারে এবং রাতে রোগী পেট উপর দিকে করে শুতে বাধ্য হয়।

এর প্রধান কারণ কি?

শরীরে হাইড্রোজেন সালফাইড গ্যাসের সৃষ্টির কারণে চোঁয়া ঢেকুর ওঠে। মুখ গহ্বরে ও পাচনতন্ত্রে উপস্থিত ব্যাকটেরিয়ার দ্বারা পেটে যাওয়া খাবারের পচনের ফলে এই গ্যাস উৎপন্ন হয়। উচ্চ-প্রোটিনযুক্ত খাদ্য ও ব্রকোলির মতো সব্জি এবং মদ হাইড্রোজেন সালফাইড গ্যাস উৎপন্ন করে। বারবার এবং দীর্ঘস্থায়ী চোঁয়া ঢেকুরের কারণ হলো গ্যাস্ট্রো-ইসেফেগাল রিফ্লাক্স ডিজিজ (জিইয়ারডি) ও ইরিটেবেল বাওয়েল সিন্ড্রোমের মতো হজমের রোগ। এর ফলে পেটের গ্যাস উপরের দিকে উঠে আসায় ঘনঘন ঢেকুর ওঠে। অন্যান্য কারণের মধ্যে রয়েছে খাদ্যে বিষক্রিয়া, বিশেষ ওষুধ, মানসিক চাপ এবং গর্ভাবস্থা।

এটি কিভাবে নির্ণয় ও চিকিৎসা করা হয়?

টক বা চোঁয়া ঢেকুরের নির্ণয় উপসর্গের ধরণ এবং চিকিৎসাজনিত বিস্তারিত ইতিহাসের ওপর নির্ভর করে করা হয়। জিইআরডি-র সম্ভাবনা এড়াতে এন্ডোস্কপি করা হতে পারে।

খাদ্য তালিকা ও জীবনশৈলীতে পরিবর্তন রোগীকে অনাবশ্যক ও বিরক্তিকর টক ঢেকুর থেকে মুক্তি দিতে সাহায্য করতে পারে। বিশেষ কিছু ঘরোয়া প্রতিকার চোঁয়া ঢেকুর কমাতে সাহায্য করতে পারে। গ্রিন টি হজমের উন্নতিতে অন্যতম সহায়ক উপাদান, এর দারুণ রকমের ব্যাকটেরিয়ারোধী গুন রয়েছে। অ্যাপেল সাইডার ভিনিগার আরও একটি দুর্দান্ত উপকরণ, যা অন্ত্রের স্বাস্থ্যকর ভারসাম্য বজায় রাখতে ব্যবহৃত হয়। এটি অন্ত্রের ব্যাক্টেরিয়াকে বাড়তে দেয় না। ব্রকোলি, অঙ্কুরিত শুঁটিদানা, ও রসুনের মতো গ্যাসবর্ধক খাবারগুলি এড়িয়ে চলাই ভালো। ধূমপান বন্ধ করা উচিত। দুগ্ধজাত খাদ্য কমানো দরকার। মদের মতোই কার্বনেটেড পানীয় গ্রহণ বন্ধ করা উচিত, কারণ এটি চোঁয়া ঢেকুরের অন্যতম কারণ।

উপরে উল্লেখিত টোটকা যদি কাজে না লাগে, তাহলে চিকিৎসককে দেখানো প্রয়োজন, তিনি হয়ত গ্যাস হওয়া কমাতে অ্যান্টাসিড নেওয়ার পরামর্শ দিতে পারেন এবং দীর্ঘস্থায়ী সমস্যার ক্ষেত্রে রোগ নির্ণায়ক পরীক্ষা করতে পারেন হজমের কোনও সমস্যা আছে কি না, তা দেখার জন্য।



তথ্যসূত্র

  1. Tack J et al. Functional gastroduodenal disorders. Gastroenterology. 2006 Apr;130(5):1466-79. PMID: 16678560
  2. Bredenoord AJ, Weusten BL, Timmer R, Akkermans LM, Smout AJ. Relationships between air swallowing, intragastric air, belching and gastro-oesophageal reflux. Neurogastroenterol Motil. 2005;17:341–347. PMID: 15916621
  3. Bredenoord AJ. Management of Belching, Hiccups, and Aerophagia. Clin Gastroenterol Hepatol. 2013;11:6–12. PMID: 22982101
  4. Scheid R, Teich N, Schroeter ML. Aerophagia and belching after herpes simplex encephalitis. Cogn Behav Neurol. 2008;21:52–54. PMID: 18327025
  5. HealthLink BC [Internet] British Columbia; Dyspepsia
  6. MedlinePlus Medical Encyclopedia: US National Library of Medicine; Gas