অ্যাপল সিডার ভিনিগার সাম্প্রতিককালে খুব জনপ্রিয় হয়েছে এবং পুষ্টিদানের ব্যাপারে এটির বিরাট মূল্য। বিভিন্ন পারিবারিক ব্যবহার এবং রান্নার কাজে এটি শতাব্দীকাল ধরে ব্যবহার হয়ে আসছে। সারা বিশ্বে বিভিন্ন সুপারমার্কেট এবং মুদিখানার দোকানে বিভিন্ন ধরনের ভিনিগার পাওয়া যায়, কিন্তু তাদের মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় হচ্ছে অ্যাপল সিডার ভিনিগার। এটিকে পুষ্টির কারখানা বলা যেতে পারে এবং এর একাধিক স্বাস্থ্যোপকারিতা আছে।

অ্যাপল সিডার ভিনিগার (যা ACV নামেও পরিচিত) হচ্ছে এমন একটি ভিনিগার যা আপেল গাঁজিয়ে করা হয়। আপেলে চাপ দিয়ে নিঙড়ে তার রস বার করা হয়। এই আপেলর রসে ইস্ট মেশানো হয় যা ফলের মধ্যে শর্করাকে অ্যালকোহলে পরিণত করে। এই প্রক্রিয়াকেই গাঁজানো বলা হয়। এরপর ওই অ্যালকোহলে ব্যাক্টিরিয়া যোগ করা হয় যা এটিকে অ্যাসেটিক অ্যাসিডে পরিণত করে। ভিনিগারে উপস্থিত অ্যাসেটিক এবং ম্যানিক অ্যাসিড ভিনিগারের অম্ল স্বাদ এবং বিশেষ গন্ধের জন্য দায়ী। এর রঙ অনুজ্জ্বল থেকে মাঝারি ধরনের হলদেটে-কমলা হয়ে থাকে। চাটনি, ম্যারিনেড, স্যলাডের ওপরে ড্রেসিং, খাদ্য সংরক্ষণের উপাদান হিসাবে এটির ব্যবহার হয়ে থাকে।

বাজারে যে সব অ্যাপল সিডার ভিনিগার পাওয়া যায় তা পরিশ্রুত এবং প্যাস্চারাইজ করা যাতে এটি দেখতে স্বচ্ছ হয় এবং সমস্ত ব্যক্টিরিয়া যাতে মেরে ফেলতে পারে এবং দীর্ঘদিন কার্যকরী থাকে। কিন্তু সেগুলি আসল অ্যাপল সিডার ভিনিগার নয়। আসলটি হচ্ছে ভিনিগার উইথ দ্য মাদার। অপরিশ্রুত ভিনিগার বা বিভিন্ন রকমের ভিনিগার উইথ দ্য মাদারের (আসল ব্যক্টিরিয়্যাল কালচার যা দিয়ে ভিনিগার প্রস্তুত হয়) মধ্যে আপনি প্রকৃতভাবে দেখতে পান যে পরিপোষক পদার্থ এবং ব্যাক্টিরিয়া দিয়ে মাদার কালচার প্রস্তুত হয়। বোতলের তলায় এটি আপনি দেখতে পাবেন, এবং ভিনিগারের রঙ ঘোলাটে হবে। এটি হচ্ছে জৈব অ্যাপল সিডার ভিনিগার, যা পাস্চুরাইজ করা হয়নি, এবং যার বহু ভেষজ গুণ আছে।

সারা বিশ্বে স্বাস্থ্য সচেতন মানুষের মধ্যে অ্যাপল সিডার ভিনিগার ক্রমেই জনপ্রিয় হচ্ছে। মনে করা হয়, এর বহুবিধ উপকারিতার মধ্যে আছে রক্তচাপ কমানো, ক্যান্সার এবং ওজন কমে যাওয়ার ঝুঁকি হ্রাস করা।

আর্য নামে এক প্রাচীন যাযাবর জাতি আপেল থেকে  একটি অম্ল স্বাদের সুরা প্রস্তুত করত এবং সেটিকেই আজকের সিডারের জনক বলা যেতে পারে। আর্যদের কাছ থেকে সিডার গ্রিক এবং রোমানদের কাছে পৌঁছায়। একটি ধারণা আছে যে সামুরাই যোদ্ধারা শক্তিবৃদ্ধি এবং সহনশীলতা বাড়ানোর জন্য অ্যাপল সিডার ভিনিগার পান করত।

  1. অ্যাপল সিডার ভিনিগারের পুষ্টির তথ্য - Apple cider vinegar nutrition facts in Bengali
  2. অ্যাপল সিডার ভিনিগারের স্বাস্থ্যোপকারিতা - Apple cider vinegar health benefits in Bengali
  3. অ্যাপল সিডার ভিনিগারের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া - Apple cider vinegar side effects in Bengali
  4. মনে রাখতে হবে - Takeaway in Bengali

অ্যাপল সিডার ভিনিগারে প্রায় 21 ক্যালরি শক্তি আছে। এটিতে কোনও স্নেহ পদার্থ, কার্বোহাইড্রেট, প্রোটিন বা ফাইবার (তন্তু) নেই। এটি ফসফরাস, ম্যাগনেসিয়াম,  ক্যালসিয়াম,  এবং পটাসিয়ামের মতো আকরিক সমৃদ্ধ পানীয়। ক্যালরি না বাড়িয়ে আপনার খাদ্যে নতুন স্বাদ এনে দিতে এর জুড়ি নেই।

USDA নিউট্রিয়্যান্ট ডেটাবেস অনুযায়ী, 100 g অ্যাপল সিডার ভিনিগারে নিম্নলিখিত উপাদান থাকে:

পরিপোষণ প্রতি 100 g-এ মূল্যমান
জল 93.81 g
শক্তি 21 kcal
ছাই 0.17 g
কার্বোহাইড্রেট 0.93 g
শর্করা 0.4 g
গ্লুকোজ 0.1 g
ফ্রাকটোজ 0.3 g
খনিজ পদার্থ  
ক্যালসিয়াম 7 mg
লোহা 0.2 mg
ম্যাগনেসিয়াম 5 mg
ফসফরাস 8 mg
পটাসিয়াম 73 mg
সোডিয়াম 5 mg
জিঙ্ক 0.04 mg
তামা 0.008 mg
ম্যাঙ্গানিজ 0.249 mg
  • ওজন কমাতে:  অ্যাপল সিডার ভিনিগারের অন্যতম ব্যবহার হল ওজন কমানোর প্রক্রিয়ায় সহায়তা করা। এটি চর্বি জমতে বাধা দেয় বলে পেটে চর্বি জমতে পারে না, যা স্থূলত্ব নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে।
  • ডায়বিটিসের জন্য: অ্যাপল সিডার ভিনিগারের অন্য গুরুত্বপূর্ণ ব্যবহার হল এটি খাওয়ার পরে গ্রহণ করলে রক্তে শর্করা নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে।
  • শ্বাসে দুর্গন্ধের জন্য:  অ্যাপল সিডার ভিনিগার শ্বাসে দুর্গন্ধ নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে কারণ এটি দাঁতের ক্ষয়ের ফলে যে গর্ত হয় সেখানকার pH মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে, যা ব্যাক্টিরিয়া বৃদ্ধি আটকায়।
  • ত্বক এবং চুলের জন্য: অ্যাপল সিডার ভিনিগার P অ্যাকনি নিয়ন্ত্রণ করে  ব্রণ বা মুখের দাগ কমায় যা কজেটিভ অর্গানিজম। এটি চুলে ব্যবহার করলে চুল রেশমি এবং উজ্জ্বল হয় এবং মাথার খুলিতে চুলকানি খুস্কি, মাথার চামড়া শুকিয়ে যাওয়া কমে, মাথার উকুন নিয়ন্ত্রিত হয়।
  • অন্যান্য উপকার: অ্যাপল সিডার ভিনিগার ব্যবহারে বিপাকীয় প্রক্রিয়া সহজ হয় এবং বিবিধ অণুজীবির বিরুদ্ধে এটির প্রতিক্রিয়া আছে, যা কানের এবং নখে সংক্রমণ কমায়। তাছাড়া, শরীরে খনিজ পদার্থ শোষণের উন্নতিতে এটি সাহায্য করে।    
  • ক্যান্সারের জন্য: অ্যাপল সিডার ভিনিগার টিউমারের আকার হ্রাস করতে সাহায্য করে এবং গ্যাস্ট্রিক ক্যান্সারের বিরুদ্ধে কাজ করার ক্ষমতা রাখে।
  • হার্টের জন্য: অ্যাপল সিডার ভিনিগার রক্তে কোলেস্টেরলের মাত্রা কমায় এবং কার্ডিওভাসকিউলার অসুখ প্রতিরোধ ত্বরান্বিত করে।

খনিজ পদার্থ শোষণের কাজে অ্যাপল সিডার ভিনিগার - Apple cider vinegar for mineral absorption in Bengali

ফরাসি শব্দ ভিন আইগারvin aigre), যার অর্থ ‘‘অম্ল স্বাদের সুরা’’, থেকে ভিনিগার কথার উৎপত্তি। অ্যাপল সিডার ভিনিগার প্রস্তুত করতে দু’টি পর্যায়ে কাজ করা হয়। প্রথমত, থেঁতো করা আপেলগুলিকে ইস্টের সংস্পর্শে রাখা হয়, যার ফলে শর্করা গেঁজে বা পচে গিয়ে অ্যালকোহলে রূপান্তরিত হয়। এর পর অ্যালকোহল দ্রবণে ব্যক্টিরিয়া ছাড়া হয় যাতে তা গেঁজে গিয়ে অ্যাসেটিক অ্যাসিড প্রস্তুত হয়। ভিনিগারের তীক্ষ্ণ অম্ল স্বাদ এবং কড়া গন্ধের জন্য অ্যাসেটিক অ্যাসিড দায়ী। খাদ্য থেকে খনিজ পদার্থ শোষণের যে শারীরিক ক্ষমতা তা বাড়াতে পারে অ্যাসেটিক অ্যাসিড। অতিরিক্ত সমীক্ষা করে দেখা গিয়েছে, অ্যাসেটিক অ্যাসিড রক্তচাপ কমাতে সক্ষম।

জৈব, অপরিশ্রুত অ্যাপল সিডার ভিনিগারে আছে ‘‘মাদার’’ যা আসলে প্রোটিন, এনজাইম এবং উপকারী ব্যাক্টিরিয়ার স্ট্র‌্যান্ড। ওই ‘‘মাদার’’-এর উপস্থিতির কারণেই অ্যাপল সিডার ভিনিগারের প্রকৃতি ঘোলাটে। এই মাদার রক্ষা করা জরুরি কারণ এটির উপস্থিতির ফলেই এটি সম্পূর্ণ স্বাস্থ্য পানীয় হতে পারে যে গুণ পরিশ্রুত অ্যাপল সিডারের মধ্যে বাও থাকতে পারে।

অ্যাপল সিডার ভিনিগারের অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল গুণাবলী - Apple cider vinegar antimicrobial properties in Bengali

অ্যান্টিবায়োটিক প্রতিরোধী ব্যাক্টিরিয়া সারা বিশ্বে দ্রুত এক বিশাল সমস্যা হয়ে দাঁড়াচ্ছে। ওষুধের মাধ্যমে নিষ্ক্রিয় করা যাচ্ছে না এমন বহু প্যাথোজেনের সংখ্যা নিয়মিত বাড়ছে। ভিনিগার প্যাথোজেন এবং ক্ষতিকারক ব্যাক্টিরিয়া বিনাশে সাহায্য করে। সংক্রমণ এড়াতে আধুনিক চিকিৎসার জনক হিপোক্রেটস ভিনিগার দিয়ে ক্ষতস্থান পরিষ্কার করতেন এবং ড্রেস করতেন বলে জানা গিয়েছে। চিরাচরিতকাল ধরে, 5000 বছরের আগে থেকে পণ্য হিসাবে ভিনিগার বাণিজ্যিকভাবে উৎপাদন এবং বাজারজাত করা হচ্ছে। ক্ষতস্থান পরিষ্কার এবং সংক্রমণ ঠেকানা, কানের সংক্রমণ, আঁচিল, উকুন প্রতিরোধ এবং নখের ফাঙ্গাস নির্মূল করার কাজে লাগানো হচ্ছে। খাদ্য সংরক্ষণের কাজেও ভিনিগার কাজে লাগে। খাদ্যে ব্যাক্টিরিয়া জন্মানো এবং খাদ্য নষ্ট করা ঠেকায়। একটি সমীক্ষায় উপসংহারে বলেছে, মানবদেহে সংক্রমণ ঘটানোর জন্য দায়ী  কলি , এস অরিয়াস, এবং C-এর (E.coliS. aureus and C.) ওপর ভিনিগারের সরাসরি একাধিক অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল প্রতিক্রিয়া আছে।

ডায়বিটিসের জন্য অ্যাপল সিডার ভিনিগার - Apple cider vinegar for diabetes in Bengali

এখনও পর্যন্ত দেখা গিয়েছে টাইপ 2 ডায়বিটিস রোগীদের ক্ষেত্রে ভিনিগারের ব্যবহারে সবচেয়ে বেশি সাফল্য পাওয়া গিয়েছে। টাইপ 2 ডায়বিটিস এমন একটি সমস্যা যা আপনার রক্তে শর্করার মাত্রা সাধারণ মাত্রার চেয়ে বেশি করে দেয়। একটি গবেষণায় দেখা গিয়েছে, দুপুরের বা রাত্রের খাবারের পর ভিনিগারের ব্যবহারে রক্তে শর্করার মাত্রা উল্লেখযোগ্যভাবে কমে। এছাড়া দেখা গিয়েছে, শোয়ার সময় ভিনিগার ব্যাবহার খাওয়া হলে খালি পেটে থাকার সময় ডায়বিটিস রোগীদের গ্লুকোজের মাত্রা 4% কমে।

রক্তে শর্করা নিয়ন্ত্রণের সবচেয়ে সহজ উপায় হচ্ছে পরিশ্রুত কার্বোহাইড্রেট এবং চিনি এড়িয়ে যাওয়া, কিন্তু রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণের ক্ষেত্রে অ্যাপল সিডার ভিনিগারের ব্যবহারে খুব ভাল ফল হয়।

(আরও পড়ুন: ডায়বিটিস সিম্পটম )

ওজ কমাতে অ্যাপল সিডার ভিনিগার - Apple cider vinegar for weight loss in Bengali

সম্প্রতি দেখা গিয়েছে, অ্যাপল সিডার ভিনিগারের মূল উপাদান অ্যাসেটিক অ্যাসিড (AcOH), শরীরে স্নেহ পদার্থ সঞ্চিত হওয়ার পথে বাধার সৃষ্টি করে। স্থূলকায় জাপানিদের শরীরের চর্বি হ্রাসের সঙ্গে ভিনিগার খাওয়ার সম্পর্ক খুঁজে বার কতে একটি সমীক্ষা করা হয়েছিল। দেখা গিয়েছিল, যাঁরা অ্যাপল সিডার ভিনিগার খেয়েছিলেন তাঁদের শরীরের ওজন, BMI, কোমরের ঘের, পেটের স্থূল এলাকা এবং সেরাম ট্রাইগ্লিসারাইড মাত্রা উল্লেখযোগ্যভাবে গ্রাস হয়েছিল। নিয়মিত ভিনিগার গ্রহণ করলে শরীরের মধ্যে সঞ্চিত চর্বি এবং স্থূলত্ব কমাতে সাহায্য করে। অ্যাপল সিডার ভিনিগার গ্রহণে পেট ভর্তি থাকার অনুভব হয় বলে খাদ্য গ্রহণের পরিমাণ কম করতে সাহায্য করে, ফলত ওজন কম হয়।

অ্যাপল সিডার ভিনিগার এবং তার ক্যান্সাররোধী উপাদান - Apple cider vinegar anticancer properties in Bengali

ক্যান্সার  হচ্ছে এমন একটি অসুখ যা কোশের অনিয়ন্ত্রিত বৃদ্ধি নিরুপিত করে।

বিভিন্ন সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, ভিনিগারের মধ্যে ক্যান্সাররোধী উপাদান রয়েছে, এবং তা ক্যান্সার দমন করতে পারে এবং টিউমারের আকার সঙ্কুচিত করতে পারে। কিছু পরীক্ষায় প্রমাণিত, অ্যাসেটিক অ্যাসিড দ্রুত কোশ বিনাশ করে। এর খুব শক্তিশালী অ্যান্টিকার্সিনোজেনিক (ক্যান্সাররোধী) গুণ রয়েছে। গ্যাস্ট্রিক ক্যান্সার এবং অন্যান্য ক্যান্সারের ক্ষেত্রে আক্রান্ত এলাকায় সরাসরি অ্যাসেটিক অ্যসিডের প্রয়োগ সম্ভাব্য চিকিৎসা হতে পারে। তবে এ যাবৎ যত পরীক্ষা হয়েছে তা হয়েছে পরীক্ষাগারে অথবা কোনও প্রাণীর ওপর প্রয়োগ করে ফল দেখা গিয়েছে। শারীরিকভাবে পরীক্ষার অভাবে মানবদেহে অ্যাপল সিডার ভিনিগারের ক্যান্সার প্রতিরোধী প্রভাব সম্পর্কে সঠিকভাবে কিছু বলা যায় না।

শ্বাসে দুর্গন্ধের জন্য অ্যাপল সিডার ভিনিগার - Apple cider vinegar for bad breath in Bengali

অম্লতা থাকলে সেই পরিস্থিতিতে ব্যাক্টিরিয়া জন্মাতে পারে না, কাজেই ভিনিগার দিয়ে মুখ ধুলে ব্যাক্টিরিয়ার বৃদ্ধিহার কমতে পারে। অম্লতা মাপা হয় pH এর মাধ্যমে। যে অবস্থায় pH মূল্য 7.0 এর কম তাকে বলা হয় অ্যাসিডিক বা আম্লিক পরিস্থিতি, আর যেখানে pH মূল্য 7.0 এর বেশি সেই পরিস্থিতিকে বলা হয় বেসিক বা ক্ষারীয়। ব্যাক্টিরিয়া সাধারণত নিউট্রোফাইলস হয় যার অর্থ, তারা প্রশমিত pH মাত্রা 7.0. এর কাছাকাছি। যেহেতু ভিনিগার স্বভাবত আম্লিক, এই পরিনেশে ব্যাক্টিরিয়া জন্মাতে পারে না। এটি শ্বাসে দুর্গন্ধ বন্ধ করে অথবা কমায়।

বাড়িতে ভিনিগার মাউথওয়াশ তৈরি করতে হলে এক কাপ জলে দুই টেবিল চামচ অ্যাপল সিডার ভিনিগার মেশান।

হার্টের স্বাস্থ্যের জন্য অ্যাপল সিডার ভিনিগার - Apple cider vinegar for heart health in Bengali

পৃথিবীতে অধিকাংশ অকাল মৃত্যুর কারণ হৃদরোগ। হৃদরোগের সঙ্গে স্থূলত্ব, জীবনশৈলী, এবং খাদ্য তালিকার মতো বহুবিধ জৈবিক কারণ জড়িয়ে থাকে। গবেষণায় জানা গিয়েছে, ভিনিগার পান করলে কার্ডিওভাসকিউলার অসুখের ঝুঁকি কমে।

প্রাণীদের ওপর একটি পরীক্ষায় দেখা হিয়েছে, খাব্যে যে অ্যাসেটিক অ্যসিড থাকে তা কোলেস্টেরল সমৃদ্ধ খাদ্যে সম্পূর্ণ কোলেস্টেরলের সিরাম কনসেন্ট্রেশন (ঘনত্ব) এবং ট্রাইগ্লিসারাইড কমায়। কিন্তু এই সমীক্ষা একটি যোগসাজসের কথা জানায়, এবং তা সঠিক প্রমাণ হিসাবে বিবেচিত হয় না। সমীক্ষা আরও বলছে, অ্যাপল সিডার ভিনিগার রক্তে শর্করার হার কমায়, ইনসুলিনের ক্ষমতা বাড়ায় এবং ডায়বিটিসের সঙ্গে যুঝতে সাহায্য করে। এই সব কারণের জন্য হৃদরোগের সম্ভাবনাও কমে। 

(আরও পড়ুন: হার্ট ডিজিজ সিম্পটম)

ব্রণর জন্য অ্যাপল সিডার ভিনিগার - Apple cider vinegar for acne in Bengali

যৌবনের একটি অতি সাধারণ সমস্যা হল ব্রণ। অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল এবং অ্যান্টিব্যাক্টিরিয়াল গুণের জন্য ভিনিগার পরিচিত। অ্যাপল সিডার ভিনিগারে অ্যাসেটিক অ্যসিড, সাকসিনিক অ্যাসিড এবং সাইট্রিক অ্যাসিড আছে। গবেষণায় প্রমাণিত যে সাকসিনিক অ্যাসিড কার্যকরভাবে ত্বকের ব্যাক্টিরিয়া প্রোপিওনিব্যাকটিরিয়াম অ্যাকনি  (P অ্যাকনি), যা ব্রণর সঙ্গে সম্পর্কিত, তা বিনষ্ট করে। এই সব পরীক্ষার ফলের ওপর ভিত্তি করে বলা জায়, ত্বকের ওপর অ্যাপল সিডার ভিনিগার ব্যবহার করলে ব্রণ বা অ্যাকনির জন্য দায়ী ব্যাক্টিরিয়া নিয়ন্ত্রণ করে।

চুলের জন্য অ্যাপল সিডার ভিনিগার - Apple cider vinegar for hair in Bengali

চুলের জন্য অ্যাপল সিডার ভিনিগারের উপকারিতা প্রমাণে তেমন কোনও সমীক্ষা হয়নি। বিভিন্ন শ্যাম্পুর pH মাত্রা মেপে প্রমাণ হয়েছে অতিরিক্ত ক্ষারীয় শ্যাম্পু চুলে ঘর্ষণের সৃষ্টি করে, চুলের আর্দ্রতা কমায়, এবং চুলের ডগা ভেঙে ফেলে, ফলত চুলের কোশ বা ফলিকল ক্ষতিগ্রস্ত হয়। সমীক্ষা বলছে, শ্যাম্পু সাধারণত ক্ষারীয় হয়ে থাকে। বিপরীতে অ্যাপল সিডার ভিনিগার pH হারে সমতা আনতে সাহায্য করে এবং তাতে চুলের ক্ষতি হয় না। অম্লতা বৃদ্ধি করে এবং মাত্রা কমিয়ে এটি চুলে ঔজ্জ্বল্য আনে, চুল রেশমি করে, এবং চুলের শক্ত বাড়ায়। অ্যাপল সিডার ভিনিগারের অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল উপাদানও আছে। এটি মাথার ত্বক ব্যাক্টিরিয়া এবং ফাঙ্গাস মুক্ত করতে সাহায্য করে, তাতে চুলকানি বন্ধ হয়। খুস্কি বা মাথার চামড়া শুষ্ক হওয়া আটকাতে পারে কিনা তেমন প্রমাণ পাওয়ার মতো গবেষণা এখনও হয়নি।

হজমের জন্য অ্যাপল সিডার ভিনিগার - Apple cider vinegar for digestion in Bengali

অ্যাপল সিডার ভিনিগার অপরিশ্রুত অবস্থায় উৎকৃষ্ট হজমের টনিকের কাজ দেয়। উজ্জীবিত এনজাইম সমৃদ্ধ এই পানীয় খাদ্যকে তার মৌলিক উপাদানে ভেঙে ফেলতে সাহায্য করে, তার ফলে বিপাকীয় প্রক্রিয়া সহজ হয়। অ্যাপল সিডার ভিনিগারের মূল উপাদান হল অ্যাসেটিক অ্যাসিড যা বিপাকীয় প্রক্রিয়ার প্রথম ধাপ কার্যকরী করে দেয়। বিপাকীয় প্রক্রিয়ার জন্য নিঃসৃত রস উজ্জীবিত হয় বলে বিপাকীয় প্রক্রিয়া ত্বরান্বিত হয়। অ্যাসেটিক অ্যাসিড খনিজ পদার্থ শোষণে সাহায্য করে বলে দেখা গিয়েছে, যার ফলে আমরা যা খাদ্য খাই তার সিংহভাগ শরীরের প্রয়োজনে লাগে।

  1. ট্যাবলেট বা তরল যা কোনওভাবেই অ্যাপল সিডার ভিনিগার খাওয়া হোক না কেন, এর উচ্চ মাত্রায় অম্লতার জন্য অতিরিক্ত ব্যবহারে খাদ্যনালী, দাঁতের এনামেল এবং পাকস্থলীর লাইনিং ক্ষয় এবং ক্ষতিগ্রস্ত করে। দাঁতে হলদে ছোপ ফেলা ছাড়া অ্যাপল সিডার ভিনিগার দাঁতের শিরশিরানি বাড়ায়। এছাড়া, অপরিশ্রুত অ্যাপল সিডার ভিনিগার সরাসরি ত্বকের ওপর লাগালে র‌্যাশ, চুলকানি হতে পারে এবং পোড়ার অনুভূতি হতে পারে।
  2. সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, অ্যাপল সিডার ভিনিগারে উচ্চ মাত্রায় অ্যাসেটিক অ্যসিড থাকার কারণে রক্তে পটাসিয়ামের মাত্রা কমায়। এই অবস্থাকে বলা হয় হাইপোক্যালেমিয়া। এই পরিস্থিতিতে দুর্বলতা, খিঁচ ধরা, বমিভাব, বহুমূত্রতা, রক্তচাপ কমে যাওয়া, হৃদস্পন্দনে পরিবর্তন এবং পক্ষাঘাতের মতো উপসর্গ দেখা যায়।
  3. অ্যাপল সিডার ভিনিগার এর অম্লতার জন্য সহজেই কিছু ওষূধ যেমন জোলাপ (কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে), ডায়রেটিকস (শরীর থেকে অতিরিক্ত জল এবং নুন বার করে দেয়), এবং ইনসুলিনের সঙ্গে বিক্রিয়া করে। যেহেতু অ্যাপল সিডার ভিনিগার সরাসরি ইনসুলিন এবং রক্তে শর্করার মাত্রার ওপরে প্রভাব ফেলে, যদি রক্তচাপ এবং রক্তে শর্করা নিয়ন্ত্রণের ওষুধের সঙ্গে যুগ্মভাবে খাওয়া হয় তাহলে তার ফল খুব খারাপ হতে পারে। ডায়বিটিস আক্রান্ত রোগীদের সতর্কতার সঙ্গে এটি বাবহার করতে হবে কারণ এর মধ্যে ক্রোমিয়াম থাকতে পারে যা ইনসুলিনের হার প্রভাবিত করতে পারে।
  4. অতিরিক্ত অ্যাপল সিডার ভিনিগারে গ্রহণ হাড়ের আকরিক ঘনত্ব বা মিনারেল ডেনসিটি কমিয়ে দিতে পারে, ফলত হাড় ভঙ্গুর হয়ে পড়ে। কাজেই, যে সব ব্যক্তি অস্টিওপোরোসিসে আক্রান্ত তাঁদের কখনও অ্যাপল সিডার ভিনিগার নিয়ে পরীক্ষানিরীক্ষা করা উচিত হবে না।
  5. অ্যাপল সিডার ভিনিগারে উচ্চ মাত্রায় অ্যাসেটিক অ্যসিডের উপস্থিতির কারণে এর অতিরিক্ত ব্যবহারে ফুলে যাওয়া, শ্বাস কষ্ট, গলায় যন্ত্রণা এবং ক্ষত হতে পারে।

অনেকেই যে অ্যাপল সিডার ভিনিগার থেকে দূরে থাকেন তার প্রধান কারণ এর স্বাদ। তবে এর স্বাদ পাল্টানো যেতে পারে যদি জল আর মধু মেশানো হয়। এবং সরাসরি অ্যাপল সিডার ভিনিগার পান করা ক্ষতিকর কারণ এর মধ্যে থাকা অ্যসিড আপনার খাদ্যনালীকে ক্ষতিগ্রস্ত করতে পারে। নিয়মিত অ্যাপল সিডার ভিনিগার খেলে রোগবালাই দূরে থাকে। কিন্তু কোনও খাদ্যই নিখুঁত হয় না এবং অতিরিক্ত ব্যবহারে পার্শ্বপ্রতিক্রয়া দেখা দেয়। কাজেই, স্বাস্থ্যের উন্নতি পরিপূর্ণভাবে পেতে গেলে পরিমিত হারে অ্যাপল সিডার ভিনিগার খাওয়া উচিত।

और पढ़ें ...

তথ্যসূত্র

  1. Carol S. Johnston, Cindy A. Gaas. Vinegar: Medicinal Uses and Antiglycemic Effect. MedGenMed. 2006; 8(2): 61. PMID: 16926800
  2. Surajit Bhattacharya. Wound healing through the ages. Indian J Plast Surg. 2012 May-Aug; 45(2): 177–179. PMID: 23162212
  3. Darshna Yagnik, Vlad Serafin, and Ajit J. Shah. Antimicrobial activity of apple cider vinegar against Escherichia coli, Staphylococcus aureus and Candida albicans; downregulating cytokine and microbial protein expression. Sci Rep. 2018; 8: 1732. PMID: 29379012
  4. Panayota Mitrou. Vinegar Consumption Increases Insulin-Stimulated Glucose Uptake by the Forearm Muscle in Humans with Type 2 Diabetes. J Diabetes Res. 2015; 2015: 175204. PMID: 26064976
  5. Kondo T, Kishi M, Fushimi T, Ugajin S, Kaga T Vinegar intake reduces body weight, body fat mass, and serum triglyceride levels in obese Japanese subjects.. Biosci Biotechnol Biochem. 2009 Aug;73(8):1837-43. Epub 2009 Aug 7. PMID: 19661687
  6. Wang Y et al. Staphylococcus epidermidis in the human skin microbiome mediates fermentation to inhibit the growth of Propionibacterium acnes: implications of probiotics in acne vulgaris. Appl Microbiol Biotechnol. 2014 Jan;98(1):411-24. PMID: 24265031
  7. Maria Fernanda Reis Gavazzoni Dias et al. The Shampoo pH can Affect the Hair: Myth or Reality?. Int J Trichology. 2014 Jul-Sep; 6(3): 95–99. PMID: 25210332
  8. Kashimura J, Kimura M, Itokawa Y. The effects of isomaltulose, isomalt, and isomaltulose-based oligomers on mineral absorption and retention. Biol Trace Elem Res. 1996 Sep;54(3):239-50. PMID: 8909697
  9. Yagnik Darshna, Ward Malcolm, Shah Ajit J. Antibacterial apple cider vinegar eradicates methicillin resistant Staphylococcus aureus and resistant Escherichia coli. Sci Rep. 2021; 11: 1854. PMID: 33473148.
  10. Gopal J, et al. Authenticating apple cider vinegar's home remedy claims: antibacterial, antifungal, antiviral properties and cytotoxicity aspect. Nat Prod Res. 2019 Mar; 33(6): 906-910. PMID: 29224370.
  11. Gheflati A, et al. The effect of apple vinegar consumption on glycemic indices, blood pressure, oxidative stress, and homocysteine in patients with type 2 diabetes and dyslipidemia: A randomized controlled clinical trial. Clin Nutr ESPEN. 2019 Oct; 33: 132-138. PMID: 31451249.
  12. Kohn JB. Is vinegar an effective treatment for glycemic control or weight loss? J Acad Nutr Diet. 2015 Jul; 115(7): 1188. PMID: 26115563.
  13. Harvard Health Publishing: Harvard Medical School [Internet]. Harvard University, Cambridge. Massachusetts. USA; Apple cider vinegar diet: Does it really work?
  14. Martínez-Zaguilán R, et al. Acidic pH enhances the invasive behavior of human melanoma cells. Clin Exp Metastasis. 1996 Mar; 14(2): 176-86. PMID: 8605731.
  15. Liu Yong, Hannig Matthias. Vinegar inhibits the formation of oral biofilm in situ. BMC oral health. 2020; 20: 167. PMID: 32503624.
  16. Halima BH, et al. Apple Cider Vinegar Attenuates Oxidative Stress and Reduces the Risk of Obesity in High-Fat-Fed Male Wistar Rats. J Med Food. 2018 Jan; 21(1): 70-80. PMID: 29091513.
  17. Hadi Amir, et al. The effect of apple cider vinegar on lipid profiles and glycemic parameters: a systematic review and meta-analysis of randomized clinical trials. BMC Complement Med. Ther. 2021; 21: 179. PMID: 34187442.
  18. Wang Yanhan, et al. Staphylococcus epidermidis in the human skin microbiome mediates fermentation to inhibit the growth of Propionibacterium acnes: Implications of probiotics in acne vulgaris. Appl microbiol biotechnol. 2014 Jan; 98(1): 411-424. PMID: 24265031.
  19. Bunick Christopher G., et al. Chemical burn from topical apple cider vinegar. JAAD. 2012; 67(4): E143-E144.