myUpchar प्लस+ के साथ पूरेे परिवार के हेल्थ खर्च पर भारी बचत

জলপাই তেল এবং পুষ্টি

ভূমধ্যসাগরীয় অঞ্চলের রন্ধন শিল্পের একটি অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ হচ্ছে জলপাই তেল, কিন্তু এখন সারা বিশ্বে স্বাস্থ্য সচেতন মানুষের রান্নাঘরে এটি আদরের পণ্য হয়ে উঠেছে। বর্তমানে আধুনিক রান্নাঘরে ‘‘ট্রেন্ড’’ (প্রবণতা) বা ‘‘ইন থিং’’ হিসাবে এটির লোক দেখানো বলে এটির বদনাম করা হচ্ছে, কিন্তু বিশ্বাস করুন সেটা ঠিক নয়। অলিভ বা জলপাই এবং জলপাই তেলের একটি দীর্ঘ এবং চমকপ্রদ ইতিহাস আছে।

আপনার যদি ইতিহাসে আগ্রহ থাকে অথবা আপনি যদি ক্রীড়াপ্রেমী হন তাহলে নিশ্চয়ই অলিম্পিক প্রতিযোগিতা সম্পর্কে জানেন। আপনি কি জানেন এই প্রাচীন গ্রিক প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের অলিভের মালা উপহার দেওয়া হতো? হ্যাঁ, এ বিষয়ে প্রামাণ্য দলিল আছে এবং এটি নির্ভুল তথ্য, কিন্তু আপনার মনে একটি প্রশ্ন জাগতে পারে, এরকম একটি প্রাচীন ঐতিহ্যপূর্ণ ট্রফির সঙ্গে অলিভের কী সম্পর্ক? আপনি জানলে আগ্রহী হবেন যে গ্রিক পুরাণে অলিভ বা জলপাই বৃক্ষকে মনে করা হতো দেবী ‘‘অ্যাথেনার’’ উপহার। যদি আপনার না জানা থাকে, তাহলে জেনে রাখুন অ্যাথেনা ছিলেন প্রজ্ঞা এবং সাহসের দেবী। অ্যাথেনার নামের ভিত্তিতেই অ্যাথেন্স নগরী নির্মিত হয়েছিল। স্বভাবতই, জলপাই বৃক্ষ এবং তার শাখা-প্রশাখাকে সর্বোচ্চ সম্মানের দৃষ্টিতে দেখা হতো। বাস্তবে, গ্রিকেরা আজও অলিভকে উন্নতির প্রতীক হিসাবে দেখে থাকেন। 2004 গ্রীষ্ম অলিম্পিকে বিজয়ীদের অলিভ শাখার মালা উপহার দেওয়া হয়েছিল।

চিকিৎসা শাস্ত্রের জনক হিপোক্রেটস অলিভ অয়েলকে ‘‘সেরা প্রশমণকারী’’ বলে অভিহিত করেছেন। কাজেই একথা নিশ্চিন্তে বলা যায় ভেষজ গুণ এবং নিরাময়ের উপাদানের জন্য অলিভের পরিচিতি দীর্ঘদিনের।

ঐতিহাসিকদের মতে, জলপাই চাষের ইতিহাস প্রায় 7000 বছর পূর্বের। গ্রিসে জলপাইয়ের যে প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন পাওয়া গিয়েছে তার ইতিহাস 3000 বছর আগের। জলপাইয়ের ভেষজ গুণ এবং নিরাময়ের উপাদানের তথ্য প্রাচীন গ্রিক সাহিত্যে পাওয়া যায়। বাস্তবিকই গ্রিক লেখক হোমার অলিভ অয়েলকে ‘‘তরল সোনা’’ বলে অভিহিত করেছিলেন।

শুনলে আশ্চর্য হবেন যে শুধুমাত্র গ্রিকেরা এই তরল সোনার প্রতি আকৃষ্ট হয়নি বা তা সংরক্ষণ করেনি। কুরাণ বা বাইবেল-এর ওল্ড টেস্টামেন্টে জলপাই ফলকে সৌভাগ্যশালী বলে বর্ণনা করা হয়েছে। মিশরীয়রা মৃতদের দেহ মামি করার প্রক্রিয়ায় জলপাইয়ের পাতা ব্যবহার করতেন। আজ, এই বিস্ময়কর বস্তুটি বিশ্বের প্রায় প্রতিটি গুরুত্বপূর্ণ দেশে পৌঁছে গিয়েছে এবং এটিকে বনস্পতি তেল, বা সূর্যমুখী তেল, বা অন্য সম্পৃক্ত তেলের বিকল্প হিসাবে ব্যবহার করা হচ্ছে।

  1. অলিভ অয়েলের ব্যবহার এবং স্বাস্থ্যোপকারিতা - Olive oil uses and health benefits in Bengali
  2. ভাল জলপাই তেল চিহ্নিত করা - How to identify good olive oil in Bengali
  3. দৈনিক জলপাই তেল গ্রহণের পরিমাণ - How much olive oil to take per day in Bengali
  4. অতিরিক্ত কাঁচা জলপাই তেল এবং তার ব্যবহার - Extra virgin olive oil and its uses in Bengali
  5. অলিভ অয়েলের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া - Olive Oil Side Effects in Bengali

আমাদের অনেকেই রান্নাঘরে অলিভ অয়েলের বোতল রাখেন এবং রান্নায় নিয়মিত ব্যবহার করেন। কিন্তু আমাদের এই রান্নার আনন্দ শুধু রান্নাঘরেই আবদ্ধ নেই। অলিভ অয়েলের একাধিক স্বাস্থ্যকর উপাদান আছে যা আমাদের স্বাস্থ্য ভাল রাখার কাজ করে। রান্না ছাড়া অন্যান্য কী কাজে জলপাই তেল কাজে লাগে তা একবার দেখে নেওয়া যাক:

  • চুলের জন্য: মাথার ত্বকের জন্য উপযুক্ত পুষ্টি জোগায় বলে চুল নরম, স্বাস্থ্যকর এবং উজ্জ্বল থাকে।
  • ত্বক এবং মুখমণ্ডলের জন্য: জলপাই তেল প্রচুর অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকে, যে কারণে এই তেল ত্বকের জন্য এত উপকারী। এটি ত্বককে শুধু নরম করে না এবং পুষ্টি সরবরাহ করে না, ত্বকের ওপরের দাগ বা ত্বক কুঁচকে যাওয়া প্রতিরোধ করে।
  • হার্টের জন্য: যখন খাদ্য তালিকায় জলপাই তেল অন্তর্ভুক্ত করা হয় তখন তার সমৃদ্ধ অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট শরীরের অক্সিডেটিভ স্ট্রেস কমায় এবং হার্টের ক্ষতি প্রতিরোধ করে। নিয়মিত গ্রহণ করলে LDL কোলেস্টেরোলের মাত্রা কমিয়ে কার্ডিওভাসকিউলার সমস্যা যেমন হৃদরোগ, আথেরোস্ক্লেরোসিস এবং মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণ বা স্ট্রোকের হার কমায়।
  • ডায়বিটিসের জন্য:  সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে যে জলপাই তেল গ্রহণ করলে ডায়বিটিসের ঝুঁকি কমে এবং রক্তে শর্করার মাত্রা কমিয়ে ডায়বিটিস নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে।
  • পাকস্থলীতে ঘা বা আলসার: কিছু সমীক্ষার পর দাবি করা হয়েছে অলিভ অয়েলের ব্যবহারের ফলে পাকস্থলীতে আলসার নিয়ন্ত্রিত হয় কারণ H.pylori প্রজাতির বিরুদ্ধে তার অ্যান্টিমাইক্রিবিয়াল প্রভাব আছে।
  • শিশুদের জন্য: শিশুদের শরীরে জলপাই তেল ম্যাসাজ করলে তা ত্বক নরম করতে সাহায্য করে এবং ডায়পার জনিত র‌্যাশের বিরুদ্ধে তা কাজ করে।
  • ক্যান্সার প্রতিরোধী: অলিভ অয়েলে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকে বলে ক্যান্সার বৃদ্ধি এবং ক্যান্সারের সম্ভাবনা রোধ করে বলে ক্যান্সার প্রতিরোধী হিসাবে কাজ করে।
  1. চুলের জন্য জলপাই তেল - Olive oil for hair in Bengali
  2. মুখমণ্ডল এবং ত্বকের জন্য অলিভ অয়েলের উপকারিতা - Olive oil benefits for face and skin in Bengali
  3. হার্টের জন্য জলপাই তেল - Olive oil for heart in Bengali
  4. প্রদাহ-বিরোধী হিসাবে জলপাই তেল - Olive oil as an anti-inflammatory agent in Bengali
  5. ডায়বিটিসের জন্য জলপাই তেল - Olive oil for diabetes in Bengali

চুলের জন্য জলপাই তেল - Olive oil for hair in Bengali

চুলকে এটি কীভাবে পুষ্টি দেয় এবং আর্দ্র করে সে কথা জলপাই তেল ব্যবহারকারীরা জোর দিয়ে বলে থাকেন। ভেষজ গবেষকেদের মতে স্কোয়ালিন এবং ওলেয়্যাক অ্যাসিডের মতো বায়োকেমিক্যাল আছে যা চুলকে কোমল রাখে। অলিভ অয়েলে যে স্নেহ পদার্থ এবং ভাইটামিন আছে তা চুলে পুষ্টি জোগানোর জন্য আদর্শ উপাদান। নিয়মিত জলপাই তেল ব্যবহার করলে আপনার মাথার ত্বকের শুষ্কতা কমে এবং তা খসখসে হয় না। তাছাড়া এটি চুলের গোড়া শক্ত করে বলে চুল নরম এবং উজ্জ্বল থাকে।

মুখমণ্ডল এবং ত্বকের জন্য অলিভ অয়েলের উপকারিতা - Olive oil benefits for face and skin in Bengali

আপনি কী জানে?

ইতিহাসের পাতায় লুকিয়ে থাকা সৌন্দর্যের রহস্যের মূল চাবিকাঠি হচ্ছে জলপাই তেল। গ্রিস এবং রোমের অধিবাসীরা এই তেল দিয়ে স্নান করতেন বলে জানা গিয়েছে। ক্লিয়োপ্যাট্রার সুগন্ধির অনতম মূল উপাদান ছিল জলপাইয়ের তেল, অলিভ অয়েলের মধ্যে যে স্নেহ পদার্থ আছে তা আপনার মুখমণ্ডল এবং ত্বককে তৈলাক্ত রাখার জন্য উৎকৃষ্ট বস্তু। আন্তর্জাতিক অলিভ কাউন্সিলের মতে অলিভ অয়েলের মধ্যে ভাইটামিন A, D, E এবং K থারা দরুণ এটি একটি উৎকৃষ্ট অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট। তাছাড়া, সমীক্ষা জানা গিয়েছে যে অলিভ অয়েলের মধ্যে ভাল পরিমাণ স্কোয়ালিন (একটি রাসায়নিক যৌগ) আছে যা একটি পরিচিত অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট। একসঙ্গে এতগুলি উপাদান ত্বককে শুধু নরম করে না কিন্তু সমস্ত দাগ এবং কালো স্পট নির্মূল করে এবং আপনার মুখমণ্ডলকে ঝকঝকে উজ্জ্বল করে। কিছু ব্যক্তির ওপর একটি সমীক্ষার পর দাবি করা হয়েছে, ভূমধ্যসাগরীয় খাদ্যতালিকায় রান্না না করা জলপাই তেল দেওয়া হলে যাঁরা তা গ্রহণ করেন না তাঁদের চেয়ে অ্যাথারোস্ক্লেরোসিস-এর (ধমনীতে প্লাক সঞ্চিত হওয়া) ঝুঁকি কমে যায়। আরও দাবি করা হয়েছে যে জলপাই তেল যে পলিফেনলের উপস্থিতির কারণে ভূমধ্যসাগরীয় খাদ্যতালিকায় স্বাস্থ্যের এই উপকারিতা সংযোজিত হয়। তবে, অলিভ অয়েলের উপকারিতা সম্যক বুঝতে হলে আপনার চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া জরুরি।

হার্টের জন্য জলপাই তেল - Olive oil for heart in Bengali

একটি নামী রিভিউ পত্রিকায় প্রকাশিত হয়েছে জলপাই তেল হচ্ছে মনোস্যাচুরেটেড ফ্যাটি অ্যসিড (ভাল স্নেহ পদার্থ) সমৃদ্ধ, যা আপনার সাধারণ বনস্পতি তেলে উপস্থিত স্নেহ পদার্থের চেয়ে উন্নতমানের বিকল্প। আরও বলা হয়েছে যে, নিয়মিত অলিভ অয়েল গ্রহণ করলে শরীরে HDL কোলেস্টেরোল বা ভাল কোলেস্টেরোলের মাত্রা বাড়ে। তাছাড়া, জলপাই তেল উপস্থিত পলিফেনল হচ্ছে এমন একটি অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট যা শরীরে ফ্রি র‌্যাডিক্যালের ক্ষতিকর প্রভাব থেকে শরীরকে প্রতিরোধ করে। আপনি হয়তো ভাবছেন, কাকে ফ্রি র‌্যাডিক্যাল বলে? শারীরিক বিপাকীয় কর্মপ্রণালীর ফলে দূষণ এবং চাপজনিত বিভিন্ন কারণে একটি প্রতিক্রিয়াশীল অক্সিজেন প্রজাতির জন্ম হয়, তাকেই ফ্রি র‌্যাডিক্যাল বলা হয়। এই এই অক্সিজেন প্রজাতিগুলি ডোমিনো এফেক্টের দরুণ লো ডেনসিটি কোলেস্টেরোল (LDL) বা খারাপ কোলেস্টেরোল-এর সঙ্গে জোট বাঁধে। যখনই LDL অক্সিডাইজ হয়ে যায় তখনই ধমনীর দেওয়ালে সেগুলি প্লাক গঠন করে। এই প্লাকের জন্য রক্তের ধমনীগুলি সঙ্কুচিত হয়ে পড়ে এবং হার্টের ওপর চাপ বাড়ায়। এই চেন প্রতিক্রিয়ার চরম অবস্থা হৃদরোগ এবং মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণ স্ট্রোক। তবে আশার কথা হল, পলিফেনল ফ্রি র‌্যাডিক্যালদের শুধু নষ্ট করে ফেলে না LDL কোলেস্টেরোলের পরিমাণও কমায় বলে হার্টের বিভিন্ন উপসর্গের ঝুঁকি কমে।        

. (আরও পড়ুন:  হার্ট ডিজিজ কজেস অন্ড ট্রিটমেন্ট- হৃদরোগের কারণ এবং তার চিকিৎসা)

প্রদাহ-বিরোধী হিসাবে জলপাই তেল - Olive oil as an anti-inflammatory agent in Bengali

চিকিৎসকেরা প্রদাহ বা ফুলে যাওয়ার সঙ্গে একধিক রোগ যেমন আর্থারাইটিস, ডায়বিটিস, কিছু ধরনের হৃদরোগ এবং ক্যান্সারের সম্পর্ক খুঁজে পান। দীর্ঘস্থায়ী প্রদাহ বা ফুলে যাওয়ার (যে ধরনের প্রদাহ ধীরে ধীরে বাড়ে এবং দীর্ঘদিন স্থায়ী হয়) পিছনে কী বৈজ্ঞানিক কারণ আছে তা ভাল করে বোঝা যায় না। কিন্তু বিজ্ঞানীরা মনে করেন, খাদ্যতালিকায় অন্তর্ভুক্ত খাদ্যের সঙ্গে প্রদাহ বৃদ্ধির গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা আছে। যাই হোক, আর্থাইটিসের মতো অসুখের ক্ষেত্রে প্রদাহের বিভিন্ন উপসর্গ  (অস্থিসন্ধি ফুলে যাওয়া বা ব্যাথা) রোগীদের অন্যতম প্রধান অস্বাচ্ছন্দ্য। সমীক্ষায় পাওয়া গিয়েছে, যে অলিভ অয়েল-এ উপস্থিত ওলিয়োক্যান্থালের (একটি সাধারণ রাসায়নিক যৌগ) মধ্যে স্বাভাবিক প্রদাহ-বিরোধী উপাদান আছে। সমীক্ষার পরিসর বাড়িয়ে দেখা গিয়েছে, কাঁচা জলপাই তেল যে প্রদাহবিরোধী উপাদান আছে তা একটি বহুল প্রচলিত প্রদাহবিরোধী ওষুধের সমতুল্য। তবে, আপনি যদি ইনফ্লামেশন বা প্রদাহের দরুণ কষ্ট পেয়ে থাকেন তাহলে যে কোনও প্রকারের জলপাই তেল গ্রহণের আগে আপনার চিকিৎসকের সঙ্গে যোগাযোগ করুন।

ডায়বিটিসের জন্য জলপাই তেল - Olive oil for diabetes in Bengali

পূর্বে মনে করা হতো, মধুমেহ বা রক্তে শর্করার পরিমাণ বৃদ্ধির উপসর্গ শুধুমাত্র ধনী এবং উচ্চবিত্তদের মধ্যে দেখা যায়, কিন্তু এখন ডায়বিটিস সমাজের সমস্ত স্তরে তার কামড় বসিয়েছে। চিকিৎসকদের মতে শহুরে অধিবাসীদের মধ্যে খাদ্যতালিকায় সমৃদ্ধির অভাবের কারণে এ ঘটনা ঘটেছে। রক্তে শর্করার বর্ধিত পরিমাণ নিয়ন্ত্রণ শুধু কঠিন কাজ নয়, তা একটি সীমা পর্যন্ত একটি মানুষের জীবন দুঃসহ করে তোলে। স্পেনে বিভিন্ন সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, যে সব মানুষ ভূমধ্যসাগরীয় খাদ্য তালিকা অনুসরণ করেন তাঁদের মধ্যে ডায়বিটিসে আক্রান্তের সংখ্যা অপেক্ষাকৃত কম। অন্য একটি সমীক্ষার ফল বলছে, ভূমধ্যসাগরীয় খাদ্য তালিকা অনুসরণ করলে রক্তে শর্করার অধিক পরিমাণ নিষ্ক্রিয় করতে সক্ষম হয় বলে রক্তে শর্করার পরিমাণ কমে যায়। এই খাদ্য তালিকা সম্পূর্ণ প্রদাহবিরোধী অলিভ অয়েল সমৃদ্ধ বলে পরোক্ষে এই রোগের প্রাবল্য কমায়। তবে প্রদাহ বা ফুলে যাওয়ার সঙ্গে ডায়বিটিস সরাসরি সম্পর্কিত কিনা তা আজও পরিষ্কার জানা যায়নি কিন্তু শরীরের ভিতরে স্ফীত হয়ে যাওয়া এই রোগের একটি কারণ বলে মনে করা হয়। যদি আপনি ডায়বিটিসের শিকার হন তাহলে এই পরামর্শটি মাথায় রাখবেন যে আপনার পুষ্টিবিদের (নিউট্রিশনিস্ট) সঙ্গে দেখা করে আপনার খাদ্য তালিকায় অলিভ অয়েলের অন্তর্ভুক্তি করিয়ে নেবেন।

জলপাই বৃক্ষ ভূমধ্যসাগরীয় অঞ্চলে প্রথম দেখা গিয়েছিল, পরে দক্ষিণ-পূর্ব ইউরোপ, পশ্চিম এশিয়া এবং আফ্রিকার কিছু অংশে ছড়িয়ে যায়। বরাবর কোল্ড প্রেস বা স্টোন প্রেসিং পদ্ধতির মাধ্যমে জলপাই গাছের (ওলিয়োইউরোপিয়া) ফল থেকে জলপাই তেল (অলিভ অয়েল) পাওয়া যায়। কিন্তু প্রাযুক্তিক উন্নতির কারণে পুরনো পদ্ধতির বদলে অনেক গতিসম্পন্ন এবং উন্নত যন্ত্রের চল হচ্ছে।

জলপাই তেল বিশেষজ্ঞদের মতে বিভিন্ন ব্যাচের তেল প্রস্তুতের সময় জলপাইয়ের আকার এবং পরিপক্কতার ওপর অলিভ অয়েলের স্বাদের বদল হয়। সাধারণত, ফল যত পাকা হবে তত তেল কম তেঁতো হবে। পরিপক্কতার ভিন্নতার জন্য তেলের রং সবুজ থেকে সোনালি- সবুজ বা পাকা জলপাইয়ের ক্ষেত্রে তরল সোনার মতো রং হয়ে থাকে।

অতএব, এর উপকারিতা সম্পর্কে জেনে নিয়ে আপনি এখন নিশ্চয় বেরিয়ে পড়তে চান এবং প্রথম বোতলটি হাতের মুঠোয় নিয়ে নিতে চান। কিন্তু বাজারে আপনি অজস্র ধরনের অলিভ অয়েলের মাঝে পড়ে স্বভাবতই হারিয়ে যেতে পারেন। প্রচুর স্থানীয় এবং আন্তর্জাতিক ব্র‌্যান্ডের জলপাই তেল বাজারে বিক্রি হচ্ছে, যারা নিজেদের সততা এবং স্ট্যান্ডার্ড নিয়ে বিভিন্ন দাবি করে চলেছে। এমতাবস্থায় যে বোতলটি দেখে আপনি প্রথমেই প্রভাবিত হয়ে পড়লেন সেটিই কিনে ফেলবেন না।  অলিভ অয়েল বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ ঘন রঙের বোতল বা টিনে ভর্তি জলপাই তেল কিনুন কারণ ওই পাত্রগুলি তেলকে প্রত্যক্ষ সূর্যরশ্মির হাত থেকে বাঁচায়। এর কারণ, প্রত্যক্ষ সূর্যরশ্মি এবং অক্সিজেনের প্রভাবে তেলের গুণগত মান হ্রাস হয়। তাছাড়া উত্তম মানের অলিভ অয়েল মুখে গেলে ফলের মতো স্বাদ পাওয়া যায় যার মধ্যে মিশে থাকে সবজি এবং ঘাসের হাল্কা স্বাদ। যখন আপনি গিলে ফেলেন তখন ঝাল স্বাদ লাগে, পরে মুখে তা অল্প তেঁতো স্বাদ রেখে যায়। যদি কখনও দুর্গন্ধ পান, তাহলে ওই নির্দিষ্ট মানের তেল এড়িয়ে চলুন। 

ফুড অ্যান্ড ড্রাগ  অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (FDA) , USA -র মতে দৈনিক 15-20 gm জলপাই তেল গ্রহণ করা যেতে পারে। তবে, একই বিবৃতিতে এ কথাও বলা হয়েছে যে অলিভ অয়েল সম্পৃক্ত চর্বির বিকল্প হবে না বা অতিরিক্ত খাদ্য হিসাবেও গ্রহণ করা চলবে না। অর্থাৎ, আপনি এটি ওষুধের মতো না পান করে, যে তেল নিয়মিত ব্যবহার করেন তার পরিবর্তে এটি ব্যবহার করুন। তার কারণ, অলিভ অয়েলের একাধিক স্বাস্থ্যকর উপাদান থাকলেও এটিতে স্নেহ পদার্থ যথেষ্ট বেশি। যেহেতু ওই চর্বি অপেক্ষাকৃত কম পরিমাণে প্রয়োজন হয়, তাই বেশি অলিভ অয়েল গ্রহণ উচিত নয়। জলপাই তেল যুক্ত করা বাড়তি হয়ে যাবে বলে অলিভ অয়েলের সঠিক ব্যবহার সম্পর্কে সবসময় চিকিৎসকের সঙ্গে কথা বলে নেওয়া উচিত; যাতে স্বাস্থ্যের সর্বোচ্চ উপকার আদায় করে নিতে পারেন।

অতিরিক্ত কাঁচা বলতে জলপাই তেল প্রস্তুতির পদ্ধতির কথা বলা হচ্ছে। এক্সট্রা ভার্জিন বা অতিরিক্ত কাঁচা অলিভ অয়েলের অর্থ যা পরিশ্রুত হয়নি। আদর্শগতভাবে এটিই সর্বোত্তম মানের অলিভ অয়েল। গবেষকদের মতে, পরিশোধনের ফলে জলপাই তেল থেকে বহু গুরুত্বপূর্ণ রাসায়নিক যৌগ বার হয়ে যায়। কাজেই, যত কম পরিশ্রুত হবে তত সেই জলপাই তেল বেশি স্বাস্থ্যকর হবে। ইটালি এবং গ্রিসের বহু রান্নার মাধ্যম হিসাবে সরাসরি জলপাই তেল ব্যবহার করা হয়। রান্নার মাধ্যম হিসাবে ছাড়া, সাবান, শ্যাম্পু, কন্ডিশনার, জাতীয় পণ্যে এবং বহু প্রসাধনী দ্রব্যে অলিভ অয়েলের ব্যাপক ব্যবহার আছে। 

কোনও কোনও সময়ে অলিভ অয়েল ত্বকের ওপর লাগানোর পর অ্যালার্জি কথা শোনা গিয়েছে। কাজেই আপনার ত্বক যদি অতিরিক্ত মাত্রায় স্পর্শকাতর বা তৈলাক্ত হয় তাহলে ত্বকের ওপর অলিভ অয়েল লাগানোর আগে চিকিৎসকের সঙ্গে পরামর্শ করে নেওয়া কাম্য। সমীক্ষা দেখা গিয়েছে ত্বকের কোনও কোনও সমস্যা যেমন এগজিমা বা সোরাইয়াসিস -এর অবনতি হতে পারে। অতএব, ত্বকের যে কোনও সমস্যায় জলপাই তেল লাগানোর আগে কোনও ত্বক বিশেষজ্ঞের সঙ্গে কথা বলে নিন। গর্ভাবস্থায় অলিভ অয়েলের ব্যবহারের সমর্থনে তেমন কোনও জোরালো প্রমাণ পাওয়া যায়নি। সুতরাং, প্রসূতিরা খাদ্যতালিকায় জলপাই তেল অন্তর্ভুক্ত করতে চাইলে তাঁদের চিকিৎসকের সঙ্গে কথা বলে নেওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়ে থাকে। জলপাই তেল হচ্ছে একটি স্বাভাবিক হাইপোগ্লাইসেমিক (যা রক্তে শর্করার পরিমাণ কমায়) অতএব ডায়বিটিস আক্রান্তদের নিজেদের চিকিৎসকের কাছ থেকে অলিভ অয়েলের সঠিক ডোজ জেনে নেওয়া প্রয়োজন।

और पढ़ें ...

References

  1. Nektaria Tsantila et al. Antithrombotic and Antiatherosclerotic Properties of Olive Oil and Olive Pomace Polar Extracts in Rabbits. Mediators Inflamm. 2007; 2007: 36204. PMID: 18253466
  2. Estruch R. Effects of a Mediterranean-style diet on cardiovascular risk factors: a randomized trial.. Ann Intern Med. 2006 Jul 4;145(1):1-11. PMID: 16818923
  3. Lucas L1, Russell A, Keast R. Molecular mechanisms of inflammation. Anti-inflammatory benefits of virgin olive oil and the phenolic compound oleocanthal.. Curr Pharm Des. 2011;17(8):754-68. PMID: 21443487
  4. Beauchamp GK et al. Phytochemistry: ibuprofen-like activity in extra-virgin olive oil. Nature. 2005 Sep 1;437(7055):45-6. PMID: 16136122
  5. Kastorini CM1, Panagiotakos DB. Dietary patterns and prevention of type 2 diabetes: from research to clinical practice; a systematic review. Curr Diabetes Rev. 2009 Nov;5(4):221-7. PMID: 19531025
  6. Medina E1, Romero C, Brenes M, De Castro A. Antimicrobial activity of olive oil, vinegar, and various beverages against foodborne pathogens. J Food Prot. 2007 May;70(5):1194-9. PMID: 17536679
  7. Lin YK1, Al-Suwayeh SA, Leu YL, Shen FM, Fang JY. Squalene-containing nanostructured lipid carriers promote percutaneous absorption and hair follicle targeting of diphencyprone for treating alopecia areata. Pharm Res. 2013 Feb;30(2):435-46. PMID: 23070602
  8. World Health Organization [Internet]. Geneva (SUI): World Health Organization; Diet, nutrition and the prevention of cance.
  9. Fabiani R. Anti-cancer properties of olive oil secoiridoid phenols: a systematic review of in vivo studies. Food Funct. 2016 Oct 12;7(10):4145-4159. PMID: 27713961
  10. Trichopoulou A1, Lagiou P, Kuper H, Trichopoulos D. Cancer and Mediterranean dietary traditions. Cancer Epidemiol Biomarkers Prev. 2000 Sep;9(9):869-73. PMID: 11008902
  11. Owen RW1, Haubner R, Würtele G, Hull E, Spiegelhalder B, Bartsch H. Olives and olive oil in cancer prevention. Eur J Cancer Prev. 2004 Aug;13(4):319-26. PMID: 15554560
  12. Martínez-Lapiscina EH. Mediterranean diet improves cognition: the PREDIMED-NAVARRA randomised trial. J Neurol Neurosurg Psychiatry. 2013 Dec;84(12):1318-25. PMID: 23670794