myUpchar प्लस+ के साथ पूरेे परिवार के हेल्थ खर्च पर भारी बचत

ফ্রি র‍্যাডিকেল জনিত কোষের ক্ষতিগুলির প্রতিরোধ অথবা বিলম্বিত করে দেয় অ্যান্টিঅক্সিডেন্টগুলি। প্রাকৃতিক ভাবে অনেক ফল এবং সবজিতে এবং কৃত্রিম পরিপূরকগুলিতে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট পাওয়া যায়। যেহেতু প্রাকৃতিক খাদ্যেই প্রচুর পরিমাণে পাওয়া যায়, তাই খাদ্যের সাথে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট পরিপূরকগুলি প্রয়োজন প্রায় হয়ই না।

বিটা ক্যারোটিন, ভিটামিন ই এবং ভিটামিন সি সমৃদ্ধ খাদ্যগুলি অ্যান্টিঅক্সিডেন্টের উত্তম উৎস, যা আপনার খাদ্য তালিকায় যোগ করতে পারেন। এই নিবন্ধে এই উৎসগুলি নিয়ে বিস্তৃত আলোচনা করা হয়েছে এবং তার সাথে অ্যান্টিঅক্সিডেন্টের উপকার, ভূমিকা এবং ক্রিয়া সম্বন্ধেও আলোচনা করা হয়েছে।

  1. অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং ফ্রি র‍্যাডিকেলগুলি কী - What are antioxidants and free radicals in Bengali
  2. অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ খাদ্য - Antioxidant foods in Bengali
  3. অ্যান্টিঅক্সিডেন্টের উপকারিতা - Antioxidants benefits in Bengali
  4. অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট চা - Antioxidant tea in Bengali
  5. অ্যান্টিঅক্সিডেন্টের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া - Side effects of antioxidants in Bengali

ফ্রি র‍্যাডিকেল একটি অণু যাতে একটি অতিরিক্ত বিজোড় ইলেকট্রন থাকে, ফলে এটি জোড় বন্ধনের জন্য খুবই সক্রিয় থাকে। এই উদ্দেশ্যে এটি শরীরের কোষের সঙ্গে প্রতিক্রিয়া করে কোষগুলিকে ক্ষতিগ্রস্ত করে। এই ক্ষতিকে অক্সিডেটিভ ক্ষতি বলা হয়, এবং এটি দেহের বিভিন্ন অঙ্গের এবং প্রক্রিয়ার পক্ষে ক্ষতিকারক বলে বিবেচিত হয়। বিভিন্ন অসুখের মূল কারণ হল এটি।

দেহের বিপাক প্রক্রিয়ার ফলে, অথবা বিভিন্ন কারণে, যেমন পরিবেষ দূষণ, রাসায়নিক, কীটনাশক, ধোঁয়া, ইউভি রশ্মি, রঞ্জন রশ্মি ইত্যাদির সংস্পর্শে এসে ফ্রি র‍্যাডিকেলগুলির সৃষ্টি হয়। এ'ছাড়া খাদ্য তালিকায় অতিরিক্ত 'জাঙ্ক ফুড' থাকলেও ফ্রি র‍্যাডিকেল সৃষ্টি হতে পারে।

এগুলি সক্রিয় ভাবে দেহের কোষের উপরে ক্রিয়া করে, বিশেষত ত্বকের কোষের উপরে। ফলে চামড়ায় অকাল বার্ধক্যের চিহ্ন, যেমন বলিরেখা, দেখা দেয়। ফ্রি র‍্যাডিকেলগুলি চুলেরও প্রভূত ক্ষতি করে - বয়সের সাথে সাথে চুল পেকে যায় এবং ঝরে যায়।

বয়স সম্পর্কিত অ্যালোপেসিয়া (মাথায় ছোট ছোট জায়গায় টাক পড়া) শুরু হয় অক্সিডেটিভ চাপের কারণে। কাজেই সঠিক ভাবেই বলা হয়েছে যে বুড়িয়ে যাওয়ার একটি অন্যতম কারণ হচ্ছে অক্সিডেটিভ চাপ।

 (আরও পড়ুন: টাকের চিকিৎসা)

মানব দেহের উপরে ফ্রি র‍্যাডিকেলের অন্যান্য প্রভাবগুলি হল:

ফ্রি র‍্যাডিকেল সৃষ্টি একটি অনিবার্য প্রক্রিয়া। তবে খাদ্যে অ্যান্টিঅক্সিডেন্টগুলির পরিমাণ বাড়িয়ে, ফ্রি র‍্যাডিকেলের প্রতি শরীরের প্রতিক্রিয়াটি সংশোধন করা যেতে পারে।

খাদ্যের অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট তার একটি অতিরিক্ত ইলেকট্রন ফ্রি র‍্যাডিকেলকে প্রদান করে যাতে তারা জোড় বেঁধে রাসায়নিক অস্থায়িত্ব দূর করতে পারে। অতএব অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ফ্রি র‍্যাডিকেলের কার্যকলাপকে প্রতিরোধ করে দেহের কোষের অক্সিডেটিভ ক্ষতি রোধ করতে পারে। সেই জন্যই দৈনন্দিন খাদ্যে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট একটি অপরিহার্য উপাদান।

নিম্ন লিখিত খাদ্যগুলিতে পর্যাপ্ত পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট আছে। এইগুলির পরিমাণ বৃদ্ধি করে স্বাস্থ্যের সর্বাধিক উপকার পাওয়া যেতে পারে। তবে আপনার পুষ্টিবিশেষজ্ঞ অথবা চিকিৎসকের সাথে পরামর্শ করে আপনার উপযুক্ত খাদ্য নির্বাচন করা জরুরী।

  • ভিটামিন সি সমৃদ্ধ খাদ্য:
  • ভিটামিন ই সমৃদ্ধ খাদ্য:
    • স্যালমন
    • ডিম
    • মাছের তেল
    • সমুদ্রজাত খাদ্য
    • মাংস
    • চর্বিহীন মাংস
    • যকৃৎ
       
  • ভিটামিন এ সমৃদ্ধ খাদ্য:
    • পিগমেন্টযুক্ত সবজি যেমন হলুদ, সবুজ এবং লাল ক্যাপসিকাম এবং গাজর
    • সবুজ পাতাযুক্ত যেমন কেলি, স্পিনিচ, ব্রোকোলি
    • পেপে
    • এ্যাপ্রিকট
    • দুধ এবং দুগ্ধজাত পণ্য (আরও পড়ুন: ভিটামিন এ’র উৎস)
       
  • অ্যান্টিঅক্সিডেন্টের অন্যান্য উৎস

মানুষের স্বাস্থ্যের উপরে, বিশেষত ত্বকের স্বাস্থ্যে অ্যান্টিঅক্সিডেন্টের বিশেষ উপকার আছে। অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট অক্সিডেটিভ ক্ষতি হ্রাস করে ফলে অনেক অসুখ এবং স্বাস্থ্যের সমস্যা কম করে। অ্যান্টিঅক্সিডেন্টের কয়েকটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ স্বাস্থ্য-সংক্রান্ত উপকার নিচে আলোচনা করা হল:

  • ত্বকের জন্য: ত্বকের জন্য অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট খুবই উপকারী কারণ এটি ত্বক কুঁচকে যাওয়া, বলিরেখা এবং বয়সের অন্যান্য ছাপ আসাকে বিলম্বিত করে। সূর্যালোক থেকে সুরক্ষা এবং ক্ষত নিরাময় কার্যে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট জড়িত থাকে।
  • চুলের জন্য: চুলের জন্য অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট খুবই উপকারী। চুল পড়ে যাওয়া এবং চুলের অকাল পক্কতা প্রতিরোধ করে চুলকে রক্ষা করে।
  • চোখের জন্য: অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট চোখের উপকারেও আসে। বয়স-জনিত কারণে ম্যাকুলার ক্ষয়কে প্রায় 25% কম করে। ছানি পড়ার ঝুঁকিও হ্রাস করে, ফলে বয়স্কের অন্ধত্বের ঝুঁকি কমায়।
  • মস্তিষ্কের জন্য: স্নায়ুর ক্ষয় এবং স্মৃতি লোপ পাওয়ার কারণ অক্সিডেটিভ চাপ। অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এই অক্সিডেটিভ চাপকে কম করে। আল্জ্হেইমের রোগের কারণ হল বিটা-এমাইলয়েড প্রোটিন। গবেষণা দেখিয়েছে যে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এই বিটা-এমাইলয়েড প্রোটিনের মাত্রা কমিয়ে রাখে।
  • ওজন হ্রাসের জন্য: অ্যান্টিঅক্সিডেন্টগুলি খাদ্যের সাথে যুক্ত হলে চর্বির বিপাকের সহায়তা করে এবং ওজন কমানোর প্রক্রিয়াতে সহায়তা করে।
  • অন্যান্য সুবিধাগুলি: অঙ্গের ক্ষয়-ক্ষতি রোধ করে অ্যান্টিঅক্সিডেন্টগুলি সম্ভবত করোনারি হার্টের অসুখের ঝুঁকি কম করে। কর্কট রোগ প্রতিরোধেও অ্যান্টিঅক্সিডেন্টের ভূমিকা প্রমাণিত হয়েছে।

কয়েক প্রকারের ফ্ল্যাভোনয়েড সমৃদ্ধ চা আছে, যাদের অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট গুণ খুবই বেশি। নিয়মিত ভাবে এই চা পান করলে ফ্রি র‍্যাডিকেল জনিত অক্সিডেটিভ ক্ষতি হ্রাস হওয়ার সম্ভাবনা আছে। চার ধরণের চা খুবই উপকারী, যেমন সাদা চা, সবুজ চা, কালো চা এবং উলং চা।

সাদা চা প্রস্তুত করা হয় তাজা কচি পাতা থেকে, আর উলং চা এবং কালো চা সামান্য প্রক্রিয়াকৃত এবং এতে আলো এবং তাপ প্রয়োগ করা হয়। সবুজ চাতে থাকে প্রো-অক্সিডেন্ট এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং এই চা ফ্রি র‍্যাডিকেল থেকে রক্ষা করে।

সবুজ চা প্রস্তুত করার জন্য ক্যাটেচিনগুলির জারণ হওয়ার আগেই চা পাতা খুব তাড়াতাড়ি সিদ্ধ করা হয় অথবা উত্তপ্ত করা হয়। 1 চা-চামচ চা পাতা গরম ফুটন্ত জলে দিয়ে দুই থেকে তিন মিনিট অপেক্ষা করুন। তারপর ছেঁকে নিয়ে পান করুন।

যদিও অ্যান্টিঅক্সিডেন্টগুলির অনেক উপকার আছে, তবুও অত্যধিক পরিমাণে অথবা কৃত্রিম সম্পূরক খেলে ক্ষতিকারক হতে পারে। সুপারিশ করা হচ্ছে যে আপনার খাদ্যে কোন রূপ পরিবর্তন অথবা সম্পূরক যোগ করার আগে আপনার চিকিৎসকের সাথে পরামর্শ করুন।

অ্যান্টিঅক্সিডেন্টের প্রকারের উপরে নির্ভর করবে তার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াগুলি। নিচের দেওয়া পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াগুলির কোন একটি দেখা দিলে চিকিৎসকের সাথে পরামর্শ করবেন:

और पढ़ें ...